• ফুটবল

মাস্টার ট্যাকটিশিয়ানদের খুঁটিনাটি: যাদের দারুণ উদ্ভাবনী কৌশল আধুনিক ফুটবলকে এক অনন্যমাত্রায় নিয়ে গিয়েছে

পোস্টটি ৫৪৮ বার পঠিত হয়েছে
'আউটফিল্ড’ একটি কমিউনিটি ব্লগ। এখানে প্রকাশিত সব লেখা-মন্তব্য-ছবি-ভিডিও প্যাভিলিয়ন পাঠকরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে নিজ উদ্যোগে করে থাকেন; তাই এসবের সম্পূর্ণ স্বত্ব এবং দায়দায়িত্ব লেখক ও মন্তব্য প্রকাশকারীর নিজের। কোনো ব্যবহারকারীর মতামত বা ছবি-ভিডিওর কপিরাইট লঙ্ঘনের জন্য প্যাভিলিয়ন কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না। ব্লগের নীতিমালা ভঙ্গ হলেই কেবল সেই অনুযায়ী কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিবেন।

ফুটবল এমন একটি খেলা যেখানে শারীরিক দক্ষতার পাশাপাশি কৌশলগত পরিশীলনও সমানভাবে গুরুত্বপূর্ণ। ফলশ্রুতিতে পৃথিবীর প্রায় অধিকাংশ মানুষের কাছে জনপ্রিয় এই খেলায় বছরের পর বছর ধরে উল্লেখযোগ্য বিবর্তন হয়েছে। এই বিবর্তনটি আসলে কৌশলগত চিন্তাভাবনা এবং উদ্ভাবনের ক্রমাগত পরিবর্তনের জন্য প্রাথমিকভাবে দায়ী। এই বিষয়ে, আমরা কিছু আইকনিক ফুটবল মাস্টার ট্যাকটিশিয়ানদের কৌশল কাটাছেঁড়া করলেই বুঝতে পারি যে তাদের দারুণ উদ্ভাবনী কৌশলগুলো আধুনিক ফুটবলকে উল্লেখযোগ্যভাবে অনন্য এক মাত্রা দিয়েছে। তো সমগ্র ফুটবল সমর্থকদের সাথে নিয়েই তাদের ফুটবল দর্শন এবং আকর্ষনীয় বিবর্তন একটু আলোকপাত করে দেখা যাক-

 

রাইনাস মিশেল এবং টোটাল ফুটবলের আগমন-

নেদারল্যান্ডস থেকে উঠে আসা রাইনাস মিশেল 'টোটাল ফুটবল' প্রবর্তনের মাধ্যমে ফুটবল কৌশলে আমূল পরিবর্তন এনেছিলেন। এই সিস্টেমে সাধারণত খেলোয়াড়েরা ফ্লুইডলি তাদের পজিশন স্যুইচ করে থাকে, যার ফলে বল দখলে থাকাকালীন মাঠের জায়গাগুলো কিছুটা প্রসারিত হয় এবং ডিফেন্স করার সময় জায়গাগুলো আবার সংকুচিত হয়ে যায়।এটি স্পষ্ট যে মিশেলের ফ্লেক্সিবল এবং পজিশনলেস খেলার দর্শন ফুটবলে বিপ্লব ঘটিয়েছিল যা খেলোয়াড়ের ভূমিকা এবং দল গঠন সম্পর্কে প্রচলিত জ্ঞানকে বেশ ভালোভাবেই চ্যালেঞ্জ জানিয়েছিল। দলে ফ্লুইড এবং ফ্লেক্সিবল কাঠামো গঠন করার ক্ষেত্রে তাঁর ধারণা আধুনিক ফুটবলের কৌশলগত বিবর্তনকে সদা বিকশিত করতে দারুণ প্রভাব রেখেছে। যদিও আজকের দিনে টোটাল ফুটবল বেশ কম প্রচলিত, তবুও আধুনিক ট্যাকটিকাল সিস্টেমের কিছু কিছু জায়গায় টোটাল ফুটবলের প্রতিচ্ছবি বেশ ভালোভাবেই দেখা যায়।

 

ইয়োহান ক্রুইফ এবং দ্য আর্ট অব টিকি-টাকা-

রাইনাস মিশেলের অন্যতম ছাত্র ইয়োহান ক্রুইফ 'টিকি-টাকা' প্রবর্তন করে তার পরামর্শদাতার কৌশলগত দর্শনকে আরও প্রসারিত করেছিলেন। তাঁর এই কৌশলের সাথে স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনা ওতপ্রোতভাবে জড়িত। এই ট্যাকটিকসে মূলত দ্রুততার সাথে ছোট ছোট পাস খেলার মাধ্যমে বল নিজেদের দখলে রাখা হয় এবং দারুণ বুদ্ধিমত্তার সাথে অফ দ্য বল মুভমেন্টের মাধ্যমে স্কোরিংয়ের সুযোগ তৈরি করাকে অধিক প্রাধান্য দেওয়া হয়। প্রাথমিকভাবে চিন্তা করলে টিকি-টাকার দর্শন আসলে বেশ জটিল যা উচ্চ স্তরের দক্ষতা এবং প্রত্যাশার পাশাপাশি দলবদ্ধভাবে খেলোয়াড়দেরকে আরও  সুসংবদ্ধ করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এই দর্শন কেবল অনেক সমসাময়িক কোচকেই প্রভাবিত করেনি বরং ভক্তদেরকেও ফুটবল ইতিহাসের সবচেয়ে স্মরণীয় এবং নান্দনিকভাবে আনন্দদায়ক মুহুর্তগুলোও উপহার দিয়েছে। আজও, টিকি-টাকাকে সবচেয়ে সফল এবং নান্দনিকভাবে আনন্দদায়ক কৌশলগুলোর মধ্যে একটি হিসাবে বিবেচনা করা হয় এবং পেপ গার্দিওলা এর সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য উদাহরণ।

 

হেলেনিও হেরেরা এবং কাতানেচ্চিওর রাজত্ব-

অতি-রক্ষণাত্মক পদ্ধতির জন্য প্রায়শই সমালোচিত আর্জেন্টািইন-ফরাসি কোচ হেলেনিও হেরেরার জনপ্রিয় 'কাতেনেচ্চিও' কৌশলটি শক্তিশালী প্রতিরক্ষামূলক সংগঠন এবং দ্রুত পাল্টা আক্রমণের জন্য ফুটবলবিশ্বে বিখ্যাত। হেরেরার এই দর্শনকে প্রায়শই দৃঢ় প্রতিরক্ষামূলক কৌশল হিসাবে দেখা হয় তবে কাতেনেচ্চিও ফুটবলে দারুণ বোঝাপড়া, খেলোয়াড়দের অনবদ্য টাইমিং এবং যথাযথ পারফরম্যান্সকে বেশ গুরুত্ব দেওয়া হয়। যদিও এর জনপ্রিয়তা সময়ের সাথে সাথে হ্রাস পেয়েছে তবে কাতানেচ্চিওর প্রতিচ্ছবি এখনও এমন কিছু  দলগুলোতে স্পষ্টভাবেই দেখা যায় যারা রক্ষণাত্মক দৃঢ়তা এবং দ্রুত পাল্টা আক্রমণকে অনেক বেশি মাত্রায় অগ্রাধিকার দেয়। এই কৌশলটি ১৯৬০ এর দশকে ইতালীয় ফুটবলকে ব্যাপকভাবে প্রভাবিত করেছিল। বিতর্কিত খ্যাতি সত্ত্বেও হেরেরার এই দর্শন ফুটবল ইতিহাসে একটি দারুণ দৃষ্টান্ত রেখে গেছে।

 

কিক অ্যান্ড রাশের ব্রিটিশ উদ্ভাবন-

ইংলিশ ফুটবলের সাধারণ 'কিক অ্যান্ড রাশ' কৌশলটি খেলায় বাঁধা-ধরা গঠন মেনে চলে না। এটি প্রতিপক্ষের রক্ষণাত্মক খেলোয়াড়দের মধ্যে বিভ্রান্তি তৈরি করতে এবং নিজেদের তৈরি স্থানগুলো কাজে লাগাতে লং এবং ডায়গোনাল পাস খেলাকে অধিক প্রাধান্য দেয়। এই কৌশলটি ফুটবলে গতি, প্রত্যক্ষতা এবং শারীরিকতার ভূমিকার উপর জোর দেয়। এর আপাত সিমপ্লিসিটি থাকা সত্ত্বেও, কিক অ্যান্ড রাশ কৌশলে সূক্ষ্ম পরিকল্পনার পাশাপাশি সঠিক সম্পাদন এবং অনবদ্য টাইমিং বেশ গুরুত্বপূর্ণ। এই কৌশলটি প্রারম্ভিকভাবে ইংলিশ ফুটবলের রুক্ষ এবং টালমাটাল অবস্থার কথা স্মরণ করিয়ে দেয়। এটি একটি অনুস্মারক হিসাবে কাজ করে যে ফুটবলের মতো সুন্দর খেলাকে বিভিন্নভাবে খেলার একাধিক উপায় রয়েছে।

 

ইয়ুর্গেন ক্লপের কল্যাণে প্রেসিংয়ের পুনরুজ্জীবন-

জার্মান কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ 'গেগেনপ্রেসিং' কৌশলে প্রেসিংয়ের ধারণায় নতুন প্রাণ সঞ্চার করেছেন। এই হাই-ইনটেন্সিভ কৌশলে প্রায়শই প্রতিপক্ষের পায়ে বল থাকা অবস্থায় টার্নওভারের পরে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বলের দখল ফিরে পাওয়ার লক্ষ্যে প্রতিনিয়ত প্রেস করাকেই প্রাধান্য দেওয়া হয়ে থাকে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ক্লপের লিভারপুলের সাফল্য এই আক্রমণাত্মক এবং শারীরিকভাবে অনবদ্যতা, কৌশলটির কার্যকারিতার প্রমাণ হিসাবে কাজ করে। ক্লপের গেগেনপ্রেসিং ফুটবলের একটি উত্তেজনাপূর্ণ, হাই-অক্টেন শৈলী তৈরি করেছে, যে রক্ষণভাগের খেলোয়াড়েরাও আক্রমণের দিক দিয়ে সেরা পারফর্মার হতে পারে তা এই ধারণাটিকে আরও বেশি মাত্রায় শক্তিশালী করেছে। গেগেনপ্রেসিং দর্শনকে ধারণ করা দলগুলোকে অবশ্যই সজাগ থাকতে হয় এবং সর্বদা প্রতিপক্ষের উপর চড়াও হওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকতে হয়।

 

ফুটবলে সুযোগ ও সারপ্রাইজ মুভের প্রভাব-

ফুটবলের মতো জনপ্রিয় খেলায় এতো কৌশলগত জটিলতা থাকা সত্ত্বেও কিছু অপ্রত্যাশিত ফলাফল এবং আশ্চর্যজনক পদক্ষেপগুলো ভক্তদের প্রতিনিয়ত অবাক করে দিচ্ছে। কোচদের অনিশ্চিত সিদ্ধান্তগুলো প্রায়শই গেম-চেঞ্জার হয়ে ওঠে এবং সমর্থকদের মাঝে উত্তেজনা জাগিয়ে তোলে, ঠিক যেমন ২০০৫ সালের 'মিরাকেল অফ ইস্তাম্বুল’। ফুটবলে খেলার পরিবর্তনশীল গতিশীলতার সাথে কৌশলেও সময়ের সাথে সাথে বিবর্তন ঘটেছে এবং কোচরা ক্রমাগত তাদের প্রতিপক্ষকে আউটস্মার্ট করার জন্য তাদের কৌশলগুলো প্রতিনিয়ত পরিমার্জন করে। প্রকৃতপক্ষে, ফুটবলের সৌন্দর্য তার অনিশ্চয়তার মধ্যেই রয়েছে। একটি ভালভাবে সম্পাদিত ট্রিক প্লে বা আশ্চর্য পদক্ষেপ যেকোনো মুহুূর্তে একটি ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারে। এই সদা-বিকশিত খেলায় সৃজনশীলতা এবং উদ্ভাবন যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে তার প্রমাণ আমরা এর আগেও বহুবার পেয়েছি।

 

ফুটবল কৌশলের ক্রমাগত বিবর্তন-

ফুটবল অন্য যে কোনও খেলার মতো একটি সদা বিকশিত খেলা। যে কৌশলগুলো একসময় পুরো ফুটবল বিশ্বে আধিপত্য বিস্তার করেছিল সেগুলো সময়ের সাথে সাথে অভিযোজিত, সংশোধন বা এমনকি বাতিলের খাতায় চলে গিয়েছে। আজ তারা আরও নতুন উদ্ভাবনী কৌশলগুলোর মাধ্যমে আধুনিক খেলাটিকে এক অনন্য রূপ দিচ্ছে। একটি বিষয় নিশ্চিত যে আমরা যখন ফুটবলের ভবিষ্যত নিয়ে কথা বলবো মাস্টার ট্যাকটিশিয়ানের এই খু্ঁটিনাটি বিষয়গুলো কখনই প্রসারিত হওয়া বন্ধ হবে না, তাদের প্লেবুকের প্রতিটি পৃষ্ঠা এই সুন্দর খেলাটির সমৃদ্ধ এবং চিত্তাকর্ষক দিকটিকে প্রতিনিয়ত ফুটিয়ে তুলবে।