• ক্রিকেট

সিরিজ হারে ইংলিশদের ‘আঁতে ঘা লেগেছে’: বাটলার

২০০৯ সালের পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে টেস্ট সিরিজ হারেনি তাঁরা। গত কয়েক বছরে ইংল্যান্ডের টেস্ট দল খুব বেশি নাকানি চুবানিও খায়নি প্রতিপক্ষের কাছে। সেই ইংল্যান্ডই প্রথম দুই টেস্টে বিশাল ব্যবধানে হেরেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে, এক ম্যাচ হাতে রেখেই দশ বছর পর সিরিজ নিশ্চিত করেছে ক্যারিবিয়ানরা। এমন হারের পর ইংলিশ উইকেটরক্ষক ও সহ-অধিনায়ক জস বাটলার বলছেন, এই সিরিজ হারে দলের সদস্যদের ‘আঁতে ঘা লেগেছে’।

 

 

প্রথম টেস্টে হারের ব্যবধান ছিল ৩৮৩ রান। দ্বিতীয় ইনিংসে অল্পের জন্য ইনিংস ব্যবধানে হারের লজ্জা থেকে বেঁচে গেছে ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ জিতেছে দশ উইকেটে। ব্যাটিং, বোলিং সব বিভাগেই গত কয়েক বছরের চিরচেনা সেই দাপুটে ইংল্যান্ডকে একদমই খুঁজে পাওয়া যায়নি।

দলের এমন পারফরম্যান্সে নারাজ কোচ ট্রেভর বেয়লিশ। দলের ক্রিকেটারদের মানসিক শক্তি নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। সবকিছু মিলিয়ে হতাশ বাটলারও, ‘সিরিজটা এখন পর্যন্ত খুব খারাপ কেটেছে। দলের কেউই তাদের যোগ্যতা অনুযায়ী পারফর্ম করতে পারেনি। চাপের সামনে আমরা ভেঙে পড়েছি বারবারই। আমাদের কোচও এসব নিয়ে বেশ কিছু কথা বলেছেন। একজন ক্রিকেটার হিসেবে অবশ্যই এটা আমার গায়ে লেগেছে। এরকম কিছু শুনলে যেকোনো ক্রিকেটারেরই আঁতে ঘা লাগবে। আমরা তাকে ভুল প্রমাণ করতে চাই।’

হোয়াইটওয়াশ হওয়া থেকে বাঁচতে শেষ টেস্টে ঘুরে দাঁড়াতেই হবে ইংল্যান্ডকে। বাটলার জানালেন, দলের আত্মবিশ্বাসই তাদের একমাত্র ভরসা, ‘দুই টেস্ট হেরেও আমাদের আত্মবিশ্বাসটা হারিয়ে যায়নি। আমরা শেষ টেস্টে ভালো খেলে নিজেদের প্রমাণ করতে চাই। সিরিজ শুরুর আগে যে পরিকল্পনা ছিল সেটা বদলাবে না। শুধু আমাদের ভালো খেলতে হবে। কন্ডিশনের সাথে মানিয়ে নেওয়াটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ব্যাটসম্যান ও বোলাররা যদি এটা ঠিকঠাকভাবে করতে পারে, তাহলেই ভালো ফলাফল আসবে।’

আগামীকাল সেন্ট লুসিয়াতে শুরু হবে সিরিজের শেষ টেস্ট।