• ওয়েস্ট ইন্ডিজ-ইংল্যান্ড সিরিজ
  • " />

     

    উইলি-উডে বিধ্বস্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজ

    স্কোর

    ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৩ ওভারে ৭১ ( হোল্ডার ১১, ম্যাককয় ১০; উইলি ৪/৭, উড ৩/৯)

    ইংল্যান্ড ১০.৩ ওভারে ৭২/২ (বেইরস্টো ৩৭, হেলস ২০; বিশু ১/১১)

    ইংল্যান্ড ৮ উইকেটে জয়ী

    আগের ম্যাচে মাত্র ৪৫ রানেই গুটিয়ে গিয়েছিল তাঁরা। আগেই সিরিজ হাতছাড়া হওয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজের লক্ষ্য ছিল হোয়াইটওয়াশ এড়ানো। ডেভিড উইলি ও মার্ক উডের বিধ্বংসী বোলিংয়ে তৃতীয় ম্যাচেও ইংল্যান্ডের কাছে অসহায় আত্মসমর্পণ করলেন জেসন হোল্ডাররা। সিরিজের শেষ ম্যাচে ক্যারিবিয়ানদের ৮ উইকেটে হারিয়ে ৩-০ তে সিরিজ জিতল এউইন মরগানের ইংল্যান্ড।

    টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নামা ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম বলেই হারায় শাই হোপকে। উইলির বলে কভারে দাঁড়ান অ্যালেক্স হেলসের হাতে সহজ ক্যাচ দিয়ে ফেরেন হোপ। টপ অর্ডারের পরের তিন ব্যাটসম্যানকেও ফিরিয়েছেন উইলি। জন ক্যাম্পবেল, শিমরন হেটমায়ার ও ড্যারেন ব্রাভো; তিনজনের কেউই ক্রিজে বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। 

    ২৪ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে তখন দিশেহারা ক্যারিবিয়ানরা। জেসন হোল্ডার ও নিকোলাস পুরান কিছুটা প্রতিরোধের চেষ্টা করেছিলেন। হোল্ডারকে ফিরিয়ে ২১ রানের জুটি ভাঙেন জো ডেনলি। ১১ রান করা হোল্ডার লং অনে ক্রিস জর্ডানের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন। পুরান ফিরেছেন উডের বলে, তিনিও করেন ১১ রান। 

    ওয়েস্ট ইন্ডিজের শেষ চার উইকেট পড়েছে ১৭ রানের ব্যবধানে। মাত্র ১৩ ওভারেই অলআউট হওয়ার আগে তাদের স্কোর দাঁড়ায় ৭১। সেটাও সম্ভব হতো না, যদি শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে নামা ওবেড ম্যাককয় একটি চার ও একটি ছয় না মারতেন। উইলি ৭ রানে নিয়েছেন ৪ উইকেট, ৯ রান দিয়ে তিন উইকেট পেয়েছেন উড।

     

     

    ৭২ রান তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই মারমুখী ছিলেন দুই ইংলিশ ওপেনার। ১৩ বলে ২০ রান করে হোল্ডারের বলে ফিরেছেন হেলস, দলের রান তখন ২৮। জনি বেইরস্টোর ৩১ বলে ৩৭ রানের সুবাদে ৫৭ বল বাকি থাকতেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় ইংল্যান্ড। ৪টি চার ও দুটি ছয়ে ৩১ বলে ৩৭ রান করে বেইরস্টো ফিরেছেন দেবেন্দ্রো বিশুর বলে বোল্ড হয়ে।