• টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
  • " />

     

    টানা তৃতীয় জয়ে সেমিফাইনালে বাংলাদেশ

    বাংলাদেশ ১০৪/৪, ১৭(১৭) ওভার 
    স্কটল্যান্ড ৪৯/৬, ৮ (৮) ওভার
    বাংলাদেশ ডি-এল পদ্ধতিতে ১৩ রানে জয়ী 


    সেমিফাইনালে বাংলাদেশের জায়গা মোটামুটি নিশ্চিতই ছিল, এ ম্যাচে হারলেও সম্ভাবনা থাকতো ভালই। তবে এ ম্যাচের দিকে চেয়ে ছিল পাপুয়া নিউ গিনিও, নিজেদের ম্যাচে তারা যুক্তরাষ্ট্রকে হারালেও স্কটল্যান্ড জিতলে সেমিফাইনালের সম্ভাবনা বেশ কমে যেত তাদের। সেই স্কটল্যান্ডকে ডি-এল পদ্ধতিতে হারিয়ে নিজেদের সঙ্গে পিএনজিরও সেমিফাইনাল নিশ্চিত করল বাংলাদেশ। গ্রুপপর্বে তিন ম্যাচে তিন জয়ে ছয় পয়েন্ট নিয়ে সেমিফাইনালে গেছে তারা, যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ আয়ারল্যান্ড। সেমিফাইনাল জিতলেই ২০২০ সালে অস্ট্রেলিয়ায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলা নিশ্চিত হবে বাংলাদেশের। গতবার এই বাছাইপর্ব টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশ। 

    ফোর্টহিলে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমেছিল বাংলাদেশ। তৃতীয় ওভারে ব্রেকথ্রু পেয়েছে স্কটল্যান্ড, ক্যাথরিন ব্রাইসের বলে টেনে মেরেছিলেন সানজিদা ইসলাম, মিড-অফে বাঁদিকে ঝাঁপিয়ে দারুণ ক্যাচ নিয়েছেন ১৪ বছর বয়সী ক্যাথরিন ফ্রেজার। দ্বিতীয় উইকেটে নিগার সুলতানার সঙ্গে ৩১ রান যোগ করেছেন এ ম্যাচে আয়েশা রহমানের জায়গায় দলে আসা মুরশিদা খাতুন, ২৭ বলে ২ চারে ২৬ রান করে তিনি স্টাম্পড হয়েছেন আবাথা মাকসুদের বলে। 

    বাংলাদেশ ইনিংসে ড্রাইভারের ভূমিকা পালন করেছেন নিগার, তৃতীয় উইকেটে রিতু মনির সঙ্গে ১৫ রানের পর চতুর্থ উইকেটে ফারজানা হকের সঙ্গে যোগ করেছেন আরও ৩৯ রান। মাকসুদের দ্বিতীয় শিকার হয়ে দ্রুতই ফিরেছিলেন রিতু, ফারজানা ব্রাইসের দ্বিতীয় শিকার হওয়ার আগে ২২ বলে ১ চারে করেছেন ২৩ রান। বৃষ্টি এসে খেলা বন্ধ করে দেওয়ার আগে ৩৭ বলে ৩ চারে ৩৫ রানে অপরাজিত ছিলেন নিগার, ১৭ ওভারে ১০৪ রানের সম্বল নিয়ে থামতে হয়েছে বাংলাদেশকে। 

    বৃষ্টি এরপর চলেছে বেশ কিছুক্ষণ, খেলা শুরু হওয়ার পর স্কটল্যান্ডের নতুন লক্ষ্য দাঁড়িয়েছে ৮ ওভারে ৬৩ রান। শুরুতেই ব্রেকথ্রু পেয়েছে বাংলাদেশও, দ্বিতীয় ওভারে নাহিদা আকতারকে ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে এসে মারতে গিয়ে স্টাম্পড হয়েছেন কেভিনের বোন সারাহ ব্রাইস। তৃতীয় ওভারে লরনা জ্যাক ক্যাচ দিয়েছেন রিতুর বলে। একদিকে কেভিন ব্রাইস চেষ্টা চালিয়ে গেছেন, তবে স্কটল্যান্ড ঠিক পথে থাকতে পারেনি শেষ পর্যন্ত। 

     

     

    তিন ব্যাটসম্যান হয়েছেন রান-আউট, ৭ম ওভারে খাদিজা-তুল-কুবরার বলে ব্রাইস ক্যাচ দিলে কার্যত আশা শেষ হয়ে গেছে স্কটিশদের। ব্রাইস ২০ বলে ২ চারে করেছেন ২২ রান। শেষ ওভারে ১৯ রান প্রয়োজন ছিল স্কটল্যান্ডের। বাংলাদেশের বিশ্বস্ত নাহিদার বলে তারা তুলতে পেরেছেন মাত্র ৫ রান।