• ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইংল্যান্ড সফর ২০২০
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    'এত জ্ঞান নিয়েও এখনও কোচ নও কেন?', টিনো বেস্টকে খোঁচা জফরা আর্চারের

    সাউথাম্পটন টেস্টে তার দলে থাকা নিয়ে প্রশ্ন তোলা সাবেক ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান পেসার টিনো বেস্টকে পালটা প্রশ্ন ছুঁড়েছেন জফরা আর্চার। ‘এত জ্ঞান নিয়ে তুমি এখনও কোচ নও কেন?’, বেস্টের টুইট রিটুইট করে লিখেছেন আর্চার। 

    ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে জেমস অ্যান্ডারসন ও মার্ক উডের সঙ্গে আরেক পেসার হিসেবে আর্চারকেই খেলাচ্ছে ইংল্যান্ড। দেশের মাটিতে ২০১২ সালের পর প্রথমবার বাদ পড়া ব্রড নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেছিলেন, তিনি ‘ক্ষুব্ধ, ক্ষিপ্ত’। 

    নিজের করা টুইটে বেস্ট বলতে চেয়েছেন, ব্রডের ক্ষিপ্ত হওয়া নিয়ে তার সমস্যা নেই, “আসলে আর্চার কেন খেলছে ব্রডের জায়গায়, [..] কারণ আপনার কাছে উড আছে যে ৯০+ (গতিতে) বোলিং করে, আর সে (আর্চার) ব্রডের মতো পেসেই বোলিং করছে, ফলে আমার ব্রডের রেগে যাওয়া নিয়ে সমস্যা নেই… এটা কোনোভাবেই ন্যায্য নয়”। 

    এর জবাবেই আর্চার বলেছেন, এতো ‘জ্ঞান নিয়েও এখনও’ বেস্ট কেন কোচিং করান না এখনও। 

    বেস্ট অবশ্য এর জবাব দিয়েছেন খোঁচা দিয়ে, “আমাকে ব্যক্তিগতভাবে ডেকো না, যুবক, এই কারণ থেকেই যায় যে তোমার বোলিং টুথপেস্টের মতো এবং তুমি অ্যাশেজের পর দ্রুতগতিতে বোলিং করতে পারোনি, এখন যাও গিয়ে ঘুমাও, বিশ্রাম নাও (কারণ) দ্বিতীয় ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজ তোমাকে পেটাবে। বাই, জফরা।” 

    এই থ্রেডে আর্চার আর কিছু বলেননি, তবে বেস্টের জবাবের আগেই টুইট করে লিখেছেন, “নিশ্চয়ই তোমার জীবনটা কষ্টের অনেক”। 

    অবশ্য বেস্টের জবাব দিয়েছে আর্চারের কাউন্টি সাসেক্স। তাদের অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডল থেকে জিফ ফাইল পোস্ট করা হয়েছে, যেখানে দেখাচ্ছে-- মাইক্রোসফটের অপারেটিং সিস্টেম ‘উইন্ডোজ’ লোড হচ্ছে। সাসেক্স ইঙ্গিত করেছে অ্যান্ড্রিউ ফ্লিনটফের সঙ্গে বেস্টের ‘স্লেজিং’য়ের বিখ্যাত ঘটনার দিকে

     

    তবে এরপর একাধিক টুইটে পরিস্থিতি ‘ঠান্ডা’ করতে চেয়েছেন বেস্ট, যারও জন্ম আর্চারের মতো বার্বাডোসেই,  “আমি এই ব্যাপারটা বন্ধ করছি। আমি তোমার অনেক প্রশংসা করি, আমার কাছের লোক সেটা জানে। তবে তোমার বন্ধুরা ঠিক আমার বন্ধু নয়, ফলে তারা আমাকে ঘৃণা করে। আমি কিছু লিখলেই তারা স্ক্রিনশট নিয়ে তোমাকে পাঠায়।” 

    “জফরা আর্চার এবং আমি ক্ষমা চাচ্ছি, কারণ সবার সামনে একে অন্যের দিকে তেড়ে যাওয়ার সময় নয় এটি। আমি শুধু তোমাকে আবারও ভাল বোলিং করতে দেখতে চাই…” 

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন