• ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইংল্যান্ড সফর ২০২০
  • " />

     

    'বায়ো-সিকিউরিটি প্রটোকল' ভেঙে নিজের বাসায় গিয়ে দল থেকে বাদ আর্চার

    দলের ‘বায়ো-সিকিউরিটি প্রটোকল’ ভাঙার দায়ে ইংল্যান্ড স্কোয়াড থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে জফরা আর্চারকে। দ্বিতীয় টেস্টের দিন সকালে এক বিবৃতিতে এটি জানিয়েছে ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড। আর্চারকে এখন পাঁচ দিনের সেলফ-আইসোলেশনে থাকতে হবে, এরপর দুটি কভিড-১৯ পরীক্ষার ভেতর দিয়ে যেতে হবে তাকে। সে দুটিতে নেগেটিভ এলেই আবারও স্কোয়াডের সঙ্গে যুক্ত করা হবে তাকে। 

    প্রথম টেস্ট শেষ হওয়ার পরদিন আলাদা আলাদা গাড়িতে এজিয়েস বোউল থেকে ওল্ড ট্রাফোর্ডে যাওয়ার কথা ছিল ইংল্যান্ড ক্রিকেটারদের। পথে নির্দিষ্ট কাউন্টি মাঠে লাঞ্চ, পূর্বনির্ধারিত ফিলিং স্টেশন থেকে পেট্রোল নেওয়ার বিরতির কথা ছিল। তবে আর্চার এ নিয়ম ভেঙে হোভে নিজের ফ্ল্যাটে গিয়েছিলেন বলে জানিয়েছে দ্য গার্ডিয়ান। তবে বুধবার দ্বিতীয় টেস্টের জন্য ১৩ জনের স্কোয়াড ঘোষণার পর এ ব্যাপারে জানতে পেরেছে ইংল্যান্ড ম্যানেজমেন্ট।*

    বিবৃতিতে ইসিবি বলেছে, আর্চারকে বাদ দেওয়ার ব্যাপারে জানানো হয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলকে, এবং এ পদক্ষেপে সন্তুষ্টও তারা। কভিড-১৯ মহামারির পর প্রথম দল হিসেবে আন্তর্জাতিক সফর করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, এ সিরিজে তিনটি টেস্ট খেলার কথা তাদের। দুটি দলই আছে নির্দিষ্ট ‘বলয়’-এর মাঝে, যাকে বলা হচ্ছে ‘বায়ো-সিকিউর বাবল’। এজিয়েস বোউলে মাঠের সঙ্গেই থাকা হোটেলে ছিল দুই দলই। ওল্ড ট্রাফোর্ডে দ্বিতীয় টেস্টের ভেন্যুতেও একই রকম পদ্ধতিতেই থেকে খেলবে তারা।  

    এর আগে ২য় টেস্টের জন্য ১৩ জনের স্কোয়াড দিয়েছিল ইংল্যান্ড। তবে আর্চারের বদলে কাউকে নেওয়া হয়নি। ১৩ জনের স্কোয়াডে আগের টেস্ট থেকে আগেই বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে পেসার জেমস অ্যান্ডারসন ও মার্ক উডকে, বাদ দেওয়া হয়েছে জো ডেনলিকে। ফলে কার্যত এখন ওলি রবিনসন, ক্রিস ওকস ও স্যাম কারানের মাঝে একজনকে বাদ দিয়ে একাদশ গঠন করতে হবে ইংল্যান্ডকে। 

    নিজের কৃতকর্মের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন আর্চার, “আমি শুধু নিজেকে না, পুরো দল এবং ম্যানেজমেন্টকেই বিপদে ফেলে দিয়েছি। আমার কাজের জন্য যে শাস্তি দেওয়া হয়েছে, আমি তা মেনে নিয়েছি, এবং বায়ো-সিকিউর বাবলে থাকা সবার কাছে ক্ষমা চাচ্ছি।” 

    “এই টেস্ট মিস করাটা আমার জন্য খুবই পীড়াদায়ক, বিশেষ করে সিরিজ যখন এই অবস্থায় আছে। আমার মনে হচ্ছে আমি দুই দলকেই হতাশ করেছি। আবারও বলছি, আমি দুঃখিত।” 

    প্রথম টেস্টে স্টুয়ার্ট ব্রড, স্যাম কারান ও ক্রিস ওকসকে বাদ দিয়ে জেমস অ্যান্ডারসনের সঙ্গে মার্ক উড ও আর্চারকে খেলিয়েছিল ইংল্যান্ড। প্রথম ইনিংসে উইকেটশূন্য থাকলেও দ্বিতীয় ইনিংসে ৪৫ রানের ৩ উইকেট নিয়েছিলেন তিনি। প্রথম টেস্ট জিতে সিরিজে এগিয়ে গেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সিরিজে টিকে থাকার লড়াইয়ে আর্চারকে হারানো ইংল্যান্ডের জন্য বড় আঘাতই। উডকে বিশ্রাম দেওয়াতে ‘এক্সপ্রেস গতি’র বোলার ছাড়াই এখন এই টেস্টে খেলতে হবে ইংল্যান্ডকে। 
     

    *আপডেটেড

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন