• ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইংল্যান্ড সফর ২০২০
  • " />

     

    দলের সবাইকে আর্চারের পাশে দাড়াতে অনুরোধ করলেন বেন স্টোকস

    ‘বায়ো-সিকিউরিটি প্রটোকল’ ভেঙে এখন বাধ্যতামূলক আইসোলেশনে রয়েছেন ইংলিশ পেসার জফরা আর্চার। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের টেস্ট সিরিজে ‘বায়ো-সিকিউর’ পরিবেশ ছেড়ে বিনা অনুমতিতে খেলোয়াড় এবং স্টাফদের কোথাও যেতে নিষেধ করেছিল ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। তবে সেই প্রটোকল ভেঙে ব্রাইটনে নিজের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন আর্চার। এরপর থেকেই দায়িত্বজ্ঞানহীন আচরণের জন্য সব দিক থেকে সমালোচনার তীর ছুটে আসছে এই তরুণ পেসারের দিকে। এমন সময়ে পুরো ইংল্যান্ড দলকে আর্চারের পাশে দাড়াতে বললেন বেন স্টোকস।


    আইসোলেশনের প্রথম এবং দ্বিতীয় দিন হোটেল রুম বন্দী হয়েই কাটিয়েছেন আর্চার। রুমের ব্যালকনিতেও আসেননি তিনি। যদিও ইসিবির পক্ষ থেকে আগেই চিত্রগ্রাহক এবং ব্রডকাস্টারদের অনুরোধ করেছিল যাতে আর্চারকে ক্যামেরাবন্দী না করা হয়। আর এই সময়ে আর্চার যাতে একাকীত্ববোধ না করেন সেজন্য সবাইকে তার পাশে দাড়াতে অনুরোধ করেছেন স্টোকস, “ইংল্যান্ডের খেলোয়াড় হিসেবে এখন আমাদের নিজেদের কাজটা ঠিকঠাক করা উচিৎ। জফরা এখন একা রয়েছে, সে এখন বড় আলোচনার বিষয়, আর এসব কিছুর মধ্যে আমাদের উচিৎ তাকে সমর্থন দিয়ে যাওয়া। সে যাতে মনে না করে যে সে এখন একা। আমরা যদি তাকে বলি, ৫-৬ দিন পর দেখা হবে, এর চেয়ে বাজে কিছু আর হয় না।”

    “এই ধরনের সময়গুলো অনেক কঠিন। আপনার মনে হতে পারে যে আপনি একদম একা, তবে এক্ষেত্রে কেউ আর্চারকে একাকীত্ববোধ করতে দেবে না। অন্য সবার মতোই আর্চারও আমাদের গ্রুপের অনেক বড় একটি অংশ। জফরার জায়গায় অন্য কেউ থাকলেও আমরা দল হিসেবে একইভাবে সমর্থন দিয়ে যেতাম।”

    পাঁচ দিনের সেলফ-আইসোলেশনে থাকার পর দুটি কভিড-১৯ পরীক্ষার ভেতর দিয়ে যেতে হবে আর্চারকে। সে দুটিতে নেগেটিভ এলেই আবারও স্কোয়াডের সঙ্গে যুক্ত করা হবে তাকে।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন