• আয়ারল্যান্ডের ইংল্যান্ড সফর ২০২০
  • " />

     

    ৪ বছর পর ইংল্যান্ড ওয়ানডে দলে টপলি, ফিরলেন বিলিংস-ডেনলি

    আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের স্কোয়াডে ডাক পেয়ে ৪ বছর পর ইংল্যান্ড জাতীয় দলের হয়ে খেলার সম্ভাবনা তৈরি করেছেন রিস টপলি। ২০১৬ সালে শেষ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছিলেন তিনি। ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের জন্য ১৪ জনের স্কোয়াডে টপলির সঙ্গে ফিরেছেন পেসার ডেভিড উইলি, আছেন টেস্ট স্কোয়াড থেকে বাদ পড়া জো ডেনলিও। ফিরেছেন স্যাম বিলিংস, লিয়াম ডসনও। 

    ২০১৫ সালে আন্তর্জাতিক অভিষেকের পর ১০টি ওয়ানডে ও ৫টি টি-টোয়েন্টি খেলেছিলেন বাঁহাতি পেসার টপলি। তবে এরপর থেকেই চোটের সঙ্গে লড়াই চলেছে তার। ২০১৮ সালে ডাক পাওয়ার দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে ছিলেন তিনি, তবে আবারও চোটের কারণে ছিটকে গিয়েছিলেন। সে চোট থেকে সেরে উঠে ১১টি টি-টোয়েন্টি ব্লাস্ট ও দুটি কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচ খেলেছেন তিনি। 

    উইলি ইংল্যান্ডের বদলে যাওয়া সীমিত ওভারের নিয়মিত সদস্যই ছিলেন, তবে ২০১৯ বিশ্বকাপে জফরা আর্চারকে জায়গায় করে দিতে হয়েছিল তার শেষ মুহুর্তে গিয়ে। সে সময় আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শেষ, এমনও ভেবেছিলেন তিনি। অন্যদিকে টেস্ট দলে ক্রমাগত ব্যর্থতার পরও ডেনলির ওপর আস্থা রেখেছেন ইংল্যান্ড নির্বাচকরা। 

    সুযোগ পাচ্ছেন ২০১৮ সালে শেষ ওয়ানডে খেলা বিলিংসও, যিনি ইংল্যান্ডের শেষ টি-টোয়েন্টি সিরিজে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ছিলেন সহ-অধিনায়ক। ৫ ইনিংসে করেছিলেন ৩৪ রান, এখন পর্যন্ত ১৫ ওয়ানডেতে ২২.৫৮ গড় তার। ২০১৮ সালে ক্যারিয়ারের ৩ ওয়ানডের শেষটি খেলেছিলেন বাঁহাতি স্পিনার ডসনও। 

    এদের বিপরীতে সুযোগ না পাওয়ার তালিকায় আছেন লিয়াম লিভিংস্টোন, ফিল সল্ট, স্যাম হেইন, বেন ডাকেটরা। তবে এ সিরিজ দিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দিকেও চোখ রাখতে চাচ্ছে ইংল্যান্ড,  এমন বলেছেন মেনস দলের নির্বাচক জেমস টেইলর, “কয়েকজন আছে, যাদের সুযোগ না পাওয়াটা দুর্ভাগ্যজনক। তবে এটি প্রমাণ করে দেয়, সর্বোচ্চ পর্যায়ে দল নির্বাচন কেমন হচ্ছে। 

    “ওয়ানডে দলের ক্রমাগত এগিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে এই সিরিজ দারুণ একটা সুযোগ। সঙ্গে ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দিকেও তাকানোর একটা সুযোগ এটি।”  

    আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে ইংল্যান্ডের এ সিরিজ দিয়েই শুরু হচ্ছে ২০২৩ বিশ্বকাপের জন্য সুপার লিগ। পরের বিশ্বকাপের শীর্ষ ৭ দল সরাসরি সুযোগ পাবে এ লিগ খেলেই। 

    ওয়েস্ট ইন্ডিজের পর পাকিস্তানের সঙ্গে আরও ৩টি টেস্ট আছে বলে এই সিরিজের স্কোয়াডে রাখা হয়নি বেন স্টোকস, জো রুট, জস বাটলার, জফরা আর্চার, ক্রিস ওকসদের। এ সিরিজে মরগানের সহকারি হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন মইন আলি। 

    ৩০ জুলাই সাউদাম্পটনে হবে প্রথম ওয়ানডে। 


    আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ইংল্যান্ড স্কোয়াড
    অইন মরগান (অধিনায়ক), মইন আলি (সহ-অধিনায়ক), জনি বেইরস্টো (উইকেটকিপার), টম ব্যান্টন, স্যাম বিলিংস, টম কারান, লিয়াম ডসন, জো ডেনলি, সাকিব মাহমুদ, আদিল রশিদ, জেসন রয়, রিস টপলি, জেমস ভিনস, ডেভিড উইলি

    রিজার্ভ
    রিচার্ড গ্লিসন, লুইস গ্রেগরি, লিয়াম লিভিংস্টোন

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন