• দক্ষিণ আফ্রিকা-শ্রীলঙ্কা
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    খুঁড়িয়েই নাটকীয় জয় এনে দিলেন ম্যাথুস

     

    দক্ষিণ আফ্রিকা ১৯.৩ ওভারে ১১৩ (কুন ২৯; সান্দাকান ৪/২৩)

    শ্রীলঙ্কা ১৯.৪ ওভারে ১১৯/৭ (ম্যাথুস ৫৪*; এনগিডি ৪/১৯)

    ফলঃ শ্রীলঙ্কা ৩ উইকেটে জয়ী


    শেষ চার ওভারে দরকার ২১ রান, হাতে উইকেট আরও পাঁচটি। শ্রীলঙ্কার সেখান থেকে জিততে না পারাটাই হতো বিস্ময়কর। কিন্তু আরেকটু হলে সেই ম্যাচই হেরে বসেছিল শ্রীলঙ্কা। খোঁড়াতে থাকা অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসই শেষ ওভারে দুই ছক্কায় এনে দিলেন ৩ উইকেটের জয়। দুঃস্বপ্নের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে এসে অবশেষে জয়ের হাসি হাসল শ্রীলঙ্কা।

    অথচ লো স্কোরিং ম্যাচে শেষটা কী রোমাঞ্চকরই হলো! ১৮তম ওভারে পর উইকেট হারিয়ে হঠাৎ করেই কিছুটা চাপে শ্রীলঙ্কা। শেষ দুই ওভারে দরকার ১২ রান, ম্যাচ তখনও শ্রীলঙ্কার দিকেই হেলে।  কিন্তু ১৯তম ওভারেই আবার আউট হয়ে গেলেন ডি সিলভা। নাটকের শুরু তখনই। পঞ্চম ওভারে অসম্ভব একটা সিঙ্গেল নিয়ে ঝাঁপ দিলেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। হ্যামস্ট্রিংইয়ে এমনই চোট পেলেন, আর দাঁড়াতেই পারছিলেন না। কিন্তু ওই অবস্থাতেই উঠে দাঁড়ালেন, পরের ওভারের জন্য স্ট্রাইকটা নিজের কাছেও রাখলেন।

    শেষ ওভারে দরকার আরও সাত রান, বল পেলেন স্মুটস। প্রথম বলে ডিপ মিডউইকেটে ক্যাচ তুলে দিলেন ম্যাথুস, কঠিন ক্যাচটা ধরতে পারল না দক্ষিণ আফ্রিকা। পরের বলেই সব রোমাঞ্চ থিতিয়ে দিলেন ম্যাথুস, ছয় মেরে ম্যাচটা নিয়ে এলেন পক্ষে। ৫০ বলে ৫৪ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে প্রথম জয় এনে দিলেন শ্রীলঙ্কাকে।

    তার আগে বোলিংয়ে আসল কাজটা করে দিয়েছিলেন সান্দাকান, টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের প্রথম বলেই উইকেট পেয়েছেন, পরে নিয়েছেন চার উইকেট। প্রায় নতুন চেহারার দক্ষিণ আফ্রিকা শেষ পর্যন্ত ধুঁকতে ধুঁকতে ১৯.৩ ওভারে করেছে ১১৩। কে জানত, সেই রান টপকাতে এমন কাঠখড় পোড়াতে হবে শ্রীলঙ্কাকে!

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন