• ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯
  • " />

     

    • ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯

    আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শেষ হেলসের?

    বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের হয়ে ওপেন করার কথা ছিল তাঁরই। কিন্তু আনন্দবর্ধক ড্রাগ নিয়ে সবকিছু ওলটপালট হয়ে গেছে অ্যালেক্স হেলসের। প্রথমে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন ২১ দিনের জন্য। এরপর বিশ্বকাপ স্কোয়াড থেকেই বাদ দেওয়া হয়েছে তাঁকে। সাবেক ইংল্যান্ড অধিনায়ক মাইকেল ভন বলছেন, জাতীয় দলের হয়ে হয়ত আর কখনোই খেলতে দেখা যাবে না হেলসকে।

    বিশ্বকাপ স্কোয়াড থেকে হেলসকে বাদ দেওয়ার বিবৃতিতে ইংল্যান্ড বোর্ডের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, এটাই হেলসের ক্যারিয়ারের শেষ নয়। কাউন্টি ক্রিকেট খেলে আবার জাতীয় দলে ফিরবেন তিনি, এমন আশাই দেখিয়েছিলেন ইসিবির ডিরেক্টর অ্যাশলি জাইলস।

    ভন অবশ্য বিবিসি রেডিওকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলছেন, আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারই হয়ত শেষ হয়ে গেছে হেলসের, ‘আমার মনে হয় না সে আর দলে ফিরতে পারবে। দেশের মাটিতে বিশ্বকাপ খেলার সুযোগ হারিয়েছে সে। এই আফসোস আজীবন তাঁকে বয়ে বেড়াতে হবে।’

    শুধু বোর্ড নয়, অধিনায়ক এউইন মরগান ও অন্য সতীর্থরাও স্কোয়াডে চাননি হেলসকে। হেলসের ক্যারিয়ার যে শেষ, এটাও একটা বার্তা, মানছেন ভন, ‘মরগান খুবই ভালো একজন নেতা। সেটা যা বলেছে সেটা একদম ঠিক। এটা এই বার্তাই দেয় যে হেলসের দলে ফেরাটা খুব কঠিন হবে। কেউই তাঁর ওপর আস্থা রাখতে পারছে না। আশা করি তাঁকে ভালো বুদ্ধি পরামর্শ করবে আশেপাশে থাকা মানুষরা।’

     

     

    ব্রিস্টলে বেন স্টোকসের সেই ঘুষি মারার ঘটনায় ছিল হেলসের নামও। সেবার অবশ্য কোন শাস্তি পাননি তিনি। ভনের ধারণা, সেবার শাস্তি পেলে সতর্ক হতেন হেলস, ‘ব্রিস্টলের ঘটনায় তাঁর এক বছরের নিষেধাজ্ঞা পাওয়ার কথা ছিল। শেষ পর্যন্ত সে বেঁচে গেছে। এমন একটা ঘটনার পরেও তাঁর মাঝে সুবুদ্ধির উদয় হয়নি। সে স্কোয়াডে না থাকায় দলের ক্ষতি হবে অবশ্যই। তবে ইংল্যান্ড তাঁর অনুপস্থিতির ধাক্কাটা কাটিয়ে উঠতে পারবে।’