• ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯
  • " />

     

    লোয়ার অর্ডারের প্রতিরোধেই সান্ত্বনা খুঁজছেন কোহলি

    একটা সময় মনে হচ্ছিল, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে ভারত পেরোতে পারবে না ১০০ রানও। টপ অর্ডারের ব্যর্থতার পর ভারতকে সেই লজ্জা থেকে বাঁচিয়েছেন পান্ডিয়া-জাদেজা-যাদবরাই। প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের কাছে ছয় উইকেটের হারের পর বিরাট কোহলি বলছেন, লোয়ার অর্ডারের ব্যাটসম্যানদের দারুণ প্রতিরোধে বিশ্বকাপকে সামনে রেখে কিছুটা স্বস্তি পাচ্ছেন তিনি।

    প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে ১০ ওভারের মাঝে ৩৯ রানেই নেই ভারতের চার উইকেট। দুই অঙ্ক না ছুঁয়েই ফিরেছেন রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান ও লোকেশ রাহুল। কোহলি আউট হয়েছেন ১৮ রানে। এরপর পান্ডিয়ার ঝড়ো ইনিংসে কিছুটা সচল হয় রানের চাকা। চারটি ছয়ে ৩৭ বলে ৩০ রান করে ফেরেন পান্ডিয়াও। এক পর্যায়ে ২৩ ওভারের মাঝে ৯১ রানেই ৭ উইকেট হারায় ভারত।

     

     

    এরপরই শুরু রবীন্দ্র জাদেজার প্রতিরোধ। ছয় চার ও দুই ছয়ে করেছেন ফিফটি। ৫০ বলে ৫৪ রান করেছেন জাদেজা। তাকে দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন কুলদীপ যাদবও, তিনি করেছেন ১৯ রান। তাদের ৬২ রানের জুটির কল্যাণেই ১৭৯ রানের স্কোর দাড় করায় ভারত। এই স্কোর অবশ্য চার উইকেট হারিয়েই টপকে যায় নিউজিল্যান্ড।

    টপ অর্ডার ব্যর্থ হলেও ব্যাট হাতে বোলারদের প্রতিরোধে দারুণ খুশি কোহলি, ‘লোয়ার অর্ডারের সবাই দারুণ ব্যাটিং করেছে। বিশ্বকাপের মতো টুর্নামেন্টে অনেক সময়ই টপ অর্ডার ভালো পারফর্ম নাও করতে পারে। তখন দলের লেজকেই হাল ধরতে হবে। পান্ডিয়া, জাদেজা, ধোনি সবাই রান পেয়েছে। এই ম্যাচ থেকে অনেক কিছুই পাওয়ার ছিল। আমার মনে হয় জাদেজাদের রান পাওয়াটাই আমাদের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি।’

    যেখানে ভারতের ব্যাটসম্যানরা রান তুলতে হিমশিম খেয়েছেন, সেখানে রস টেলর ও কেন উইলিয়ামসনরা অনায়াসেই রান তুলেছেন, দুজনেই পেয়েছেন ফিফটি। কোহলির মতে, ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে ব্যাটিংটা অনেক সহজ হয়ে গিয়েছিল, বিশকাপেও এমনটা হতে পারে, ‘দ্বিতীয়ভাগে ব্যাটিং করা অনেকটাই সহজ হয়ে গিয়েছিল। আমরা কিন্তু খারাপ বোলিং করিনি। মূল টুর্নামেন্টেও এমন কিছু দেখা যেতে পারে। পুরো ম্যাচ জুড়েই পিচ ব্যাটসম্যানদের জন্য সুবিধাজনক হবে।’