• ইউরোপা লিগ
  • " />

     

    ভিতোরিয়ার শেষ মুহূর্তের গোলে নকআউট পর্বের অপেক্ষা বাড়ল আর্সেনালের

    ভিতোরিয়া দে গুইমারিসকে হারালেই নকআউট পর্ব নিশ্চিত- এই সমীকরণ নিয়েই পর্তুগিজ প্রতিপক্ষের মাঠে এসেছিল আর্সেনাল। ম্যাচের মিনিট দশেক বাকি থাকতে লিডে থাকা আর্সেনাল ছিল সঠিক পথেই। কিন্তু অতিরিক্ত সময়ে ব্রুনো দুয়ার্তের গোলে ইউরোপা লিগে 'এফ' গ্রুপে টানা জয়ের রেকর্ডটা হাতছাড়া হল আর্সেনালের, নকআউট পর্বে যাওয়ার অপেক্ষাটাও বাড়ল উনাই এমেরির দলের। ভিতোরিয়ার মাঠে ১-১ গোলে ড্র করেছে 'গানার'রা।

    ইউরোপা লিগের ম্যাচগুলো সাধারণত চ্যাম্পিয়নস লিগের একদিন পরে হলেও পর্তুগালের যানজট সমস্যার জন্য ভিতোরিয়ার মাঠে আর্সেনালের ম্যাচটি একদিন এগিয়ে এনেছিল ইউয়েফা। পর্তুগালে ঝড়ো বৃষ্টিতে নিজেদের মাঠে শুরু থেকেই আর্সেনালকে চেপে ধরেছিল ভিতোরিয়া, কিন্তু 'গানার' গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্টিনেজ ছিলেন দুর্দান্ত ফর্মে।

     

     

    প্রথমার্ধে এডওয়ার্ডস-দুয়ার্তেদের অন্তত তিনটি নিশ্চিত গোল ফিরিয়ে দিয়েছেন তিনি। প্রথমার্ধের মাত্র একবার গোলের সুযোগ তৈরি করেছিল আর্সেনাল, কিন্তু নিকোলাস পেপের ফ্রিকিক থেকে রব হোল্ডিংয়ের হেদ চলে যায় গোলের বাইরে দিয়ে। গোলমুখে নতুন অধিনায়ক অবামেয়াংয়ের অভাবটা দারুণ ভুগিয়েছে আর্সেনালকে।

    ভিতোরিয়ার মাঠে নিষ্প্রভ পারফরম্যান্সের চেয়েও হয়তো আর্সেনালের জন্য বড় দুঃসংবাদ হয়ে আসে দানি সেবায়োসের ইনজুরি, তার বদলি হিসেবে নামেন মাতেও গুয়েন্দুজি। ফ্রেঞ্চ মিডফিল্ডার মাঠে নেমেই যেন প্রাণের সঞ্চার করেন আর্সেনালের পারফরম্যান্সে। ম্যাচে এরপর লিডও নিয়েছিল আর্সেনাল।

     

     

    ৮০ মিনিটে পেপের ফ্রিকিকে হেড করে দলকে লিড এনে দেন স্কোদরান মুস্তাফি। নকআউট পর্ব নিশ্চিত করার থেকে কয়েক মিনিট দূরে থাকার সময়ই দুর্দান্ত এক বাইসাইকেল কিকে গোলে আর্সেনাল থেকে পয়েন্ট ছিনিয়ে আনেন দুয়ার্তে। এমিরেটসেও আগের ম্যাচে গোল পেয়েছিলেন তিনি।

    শেষ পর্যন্ত বৃষ্টিস্নাত পর্তুগালে এক পয়েন্ট নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় আর্সেনালকে। ৪ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়েই শীর্ষেই থাকল এমেরির দল। অপেক্ষা বাড়লেও অবশ্য এই সপ্তাহেই নকআউট পর্ব নিশ্চিত করতে পারে তারা। আইনট্রাইখট ফ্রাঙ্কফুর্ট, স্ট্যান্ডার্ড লিয়েজকে হারিয়ে দিলে শেষ ৩২-এর টিকেট নিশ্চিত করবে এমেরির দল।