• ইউরোপা লিগ
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    সহজ জয়ে পরের রাউন্ড নিশ্চিত করল ম্যান ইউনাইটেড

    গ্রুপ পর্বের দুই ম্যাচ বাকি থাকতে ইউরোপা লিগের দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ওল্ড ট্রাফোর্ডে পার্টিজান বেলগ্রেডকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়ে ১০ পয়েন্ট নিয়ে এল গ্রুপে সবার ওপরে তারা। 

    সার্বিয়ার ক্লাবের বিপক্ষে ইউনাইটেডের জয়ের ব্যবধানটা হতে পারত দ্বিগুণ। মার্কস র‍্যাশফোর্ড শুরুর ১৫ মিনিটেই পেয়ে যেতে পারতেন হ্যাটট্রিক। গোলে মোট সাতবার শট করেও সহজ সুযোগ হাতছাড়া করায় আর জয়ের ব্যবধান বড় হয়নি ইউনাইটেডের। তবে মৌসুমের প্রথম ম্যাচে চেলসির বিপক্ষে বড় জয়ের পর এবারই প্রথম ওল্ড ট্রাফোর্ডে একের বেশি গোল পাওয়ার স্বস্তি নিয়ে নিয়ে ফিরেছে তারা।

    ২২ মিনিটে মেসন গ্রিনউইডের গোলে লিড নিয়েছিলেন ইউনাইটেড। এগারো মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেছেন অ্যান্থনি মার্শিয়াল। পরের মিনিটেই গোলরক্ষককে একা পেয়েও আর নিজের গোলের সংখ্যাটা অবশ্য বাড়ানো হয়নি তার। প্রথমার্ধে র‍্যাশফোর্ড সহজ সব সুযোগ হাতছাড়া করার পর গোল পেয়ে যান ৪৮ মিনিটে। হুয়ান মাতার ডায়াগোনাল ক্রস থেকে লে অফে র‍্যাশফোর্ডের উদ্দেশ্যে বাড়িয়েছিলেন অ্যাশলি ইয়াং। পরে বাম পায়ের দারুণ ফিনিশে কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পেয়ে যান ইংলিশ ফরোয়ার্ড। 

    পার্টিজান পুরো ম্যাচে ইউনাইটেডকে ভোগাতে পারেনি একদমই। সার্জিও রোমেরোও তাই আরও একটি ম্যাচ পার করে দিয়েছেন বড় কোনো পরীক্ষা না দিয়েই। এই নিয়ে ইউরোপা লিগে টানা ১৫ ম্যাচ অপরাজিত থাকল ইউনাইটেড। গ্রুপের শেষ ম্যাচে এজেড আলকামারকে হারিয়ে দিলেই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ- ৩২ নিশ্চিত হবে ওলে গানার সোলশারের দলের। ইউনাইটেড কোচের জন্য ম্যাচটা অবশ্য পুরোপুরি স্বস্তির হয়নি, শেষ ১৫ মিনিটে ইনজুরি শঙ্কা নিয়ে মাঠ ছেড়েছেন স্কট ম্যাকটমিনে।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন