• ইউরোপা লিগ
  • " />

     

    ড্র করে বলের ওপর দোষ চাপালেন সোলশার

    দল খারাপ করার পর কোচেরা অজুহাত দাঁড় করান অনেক রকম। লিভারপুল কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ যেমন একবার বাতাসকে কারণ হিসেবে দাঁড় করিয়েছিলেন। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড অবশ্য কাল হারেনি, ক্লাব ব্রুজের মাঠে গিয়ে ড্র করেছে ১-১ গোলে। তারপরও ফলটা তো কিছুটা হতাশারই তাদের জন্য। সেটার অজুহাত হিসেবে ইউনাইটেড কোচ ওলে গানার সোলশার দায়ী করলেন বল আর কন্ডিশনকে। 

    সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে শেষ চার ম্যাচের কোনটিতেই হারেনি সোলশায়ারের দল। এই সময়ের মাঝে ম্যানচেস্টার সিটি এবং চেলসির সঙ্গে জয়ের সুখস্মৃতিও ব্রুজের পথে সঙ্গী ছিল তাদের। কিন্তু ম্যাচের শুরুতেই স্বাগতিকদের প্রবল আক্রমণের মুখে পড়ে ইউনাইটেড। ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই ব্রুজ ফরোয়ার্ড ইমানুয়েল বোনাভেঞ্চুরের শট গোললাইন থেকে ফেরান নেমানয়া মাটিচ। তবে প্রথমার্ধের ১৫ মিনিটে ইউনাইটেড গোলরক্ষক সার্জিও রোমেরোর ভুলে এই ফরোয়ার্ডের গোলেই এগিয়ে যায় ব্রুজ। এই গোলের মিনিট বিশেক পর অ্যান্থনি মার্শিয়ালের বুদ্ধিদীপ্ত গোলে ইউনাইটেড সমতায় ফিরলেও শেষ পর্যন্ত ১-১ গোলে ড্র হয় ম্যাচ।

    তবে ম্যাচ শেষে ড্রয়ের জন্য ম্যাচে ব্যবহৃত বল এবং ব্রুজের প্রতিকূল আবহাওয়াকে দায়ী করেন ইউনাইটেড ম্যানেজার সোলাশায়ার, “ ম্যাচটি বেশ কঠিন ছিল। প্রতিকূল কন্ডিশনে দারুণ সংগঠিত একটি দলের বিপক্ষে খেলেছি আমরা। কন্ডিশন এবং বলের কারণে আমাদের খেলা অনেক কঠিন পড়েছিল। এই বলে খেলা বেশ কঠিন এবং অন্যরকম। যদিও সমস্যাটা দুই দলেরই হয়েছে। তবে কন্ডিশন একেবারেই ভালো ছিল না।” 

    তবে বলের ঠিক কোন বৈশিষ্ট্যের ফলে সমস্যা হয়েছে সে বিষয়টি খোলাসা করেননি তিনি। ইউরোপা লিগের নকআউট পর্বে বল সরবরাহ করে মলটেন।

    ব্রুজের ম্যানেজার ফিলিপে ক্লেমেন্ট অবশ্য বল নিয়ে কোনও সমস্যা দেখেননি, “বল তো ইউয়েফা সরবরাহ করে, আমাদের ক্লাব না। আর ইউরোপা লিগে এই বলই ব্যবহার হচ্ছে, এই বলে কোনও সমস্যা আছে বলে আমার মনে হয়না।”

    ২৮ ফেব্রুয়ারি ব্রুজের বিপক্ষে ওল্ড ট্রাফোর্ডে দ্বিতীয় লেগে মাঠে নামবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।  

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন