• ইউরোপা লিগ
  • " />

     

    ঘরের মাঠে কপাল পুড়ল আর্সেনালের

    ইউরোপা লিগের শেষ ৩২-র প্রথম লেগে অলিম্পিয়াকোসের মাঠ থেকে জয় নিয়ে ফিরেছিল আর্সেনাল। ১ টি অ্যাওয়ে গোলও সঙ্গী ছিল তাদের। অথচ কাল ঘরের মাঠ এমিরেটস স্টেডিয়ামে উল্টে গেল সব হিসাব-নিকাশ। ২-১ গোলে গ্রিক অতিথিদের কাছে হেরে ইউরোপা লিগ থেকে বিদায় নিল মিকেল আর্টেটার দল। দুই লেগ মিলিয়ে সমান ২-২ থাকলেও মূলত অ্যাওয়ে গোলের হিসেবেই গানারদের টপকে পরের রাউন্ডের টিকিট পেয়ে গেছে অলিম্পিয়াকোস। 

    গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধের ৮ মিনিটে সমতাসূচক গোল পেয়ে যায় অলিম্পিয়াকোস। ম্যাথিউ ভালবুয়েনার কর্নার থেকে হেডে অলিম্পিয়াকোসের হয়ে গোলটি করেন পাপা আবু সিসে। তবে এই গোলের পর ম্যাচের নির্ধারিত ও যোগ করা সময়ের বাকিটায় কোনও দলই আর গোলের দেখা পায়নি। ম্যাচ তাই অতিরিক্ত সময়ে গড়ায়, সেই ৩০ মিনিটেই টাইয়ের চিত্রপট বদলেছে। ১১৩ মিনিটে আর্সেনাল ফরোয়ার্ড পিয়ের এমেরিক অবামেয়াং অবিশ্বাস্য সিজর কিকে আর্সেনালকে এগিয়ে দিয়েছিলেন। তবে অবামেয়াংয়ের গোলের পর উল্লসিত এমিরেটসের স্বাগতিক সমর্থকরা হয়ত আঁচ করতে পারেনি, নাটকের শেষ দৃশ্য যে বাকি তখনও। ১১৯ মিনিটে গিওর্গস মাসুরাসের দুর্দান্ত ক্রসে পা ছুঁইয়ে বার্নাড লেনোকে পরাস্ত করেন ইউসেফ আল-আরাবি। আর এর মধ্য দিয়ে ঘরের মাঠেই রচিত হয় আর্সেনালের বিদায় কাব্য।

    এদিকে শেষ ৩২-র দ্বিতীয় লেগে ওল্ড ট্রাফোর্ডে ক্লাব ব্রুজকে ৫-০ গোলে হারিয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। প্রথম লেগে ব্রুজের মাঠ থেকে কষ্টার্জিত ড্র নিয়ে ফিরেছিল রেড ডেভিলরা। তবে কাল শুরু থেকেই বেলজিয়ান ক্লাবটির উপর চড়াও হয়ে খেলেছে তারা। ম্যাচের ২৭ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে ইউনাইটেডকে এগিয়ে দেন ব্রুনো ফারনান্দেস। প্রথমার্ধের ৩৪ এবং ৪১ মিনিটে যথাক্রমে  অডিওন ইঘালো এবং স্কট ম্যাকটমিনের দুই গোলে বিরতির আগেই বেলজিয়ান ক্লাবটিকে টাই থেকে একরকম ছিটকে দেয় ওলে গানার সোলশারের দল। আজ প্রথমবারের মতো একাদশে সুযোগ পেয়েই গোলের দেখাও পেয়ে গেলেন ইঘালো। শেষের দিকে ৮২ এবং ৯৩ মিনিটে ফ্রেডের জোড়া গোলে ঘরের মাঠে বড় জয় নিয়েই পরের রাউন্ডে উঠেছে ইউনাইটেড।

    ইউরোপা লিগের শেষ ৩২-র অন্যান্য ম্যাচে লুদোগোরেতসকে ২-১ গোলে হারিয়ে পরের রাউন্ডে উঠেছে ইন্টার মিলান। এছাড়া পোর্তোকে ৩-১ গোলে হারিয়ে লেভারকুসেন, ব্রাগাকে ১-০ গোলে হারিয়ে রেঞ্জার্সও পরের রাউন্ডের টিকিট পেয়েছে। সিএফআর ক্লুযের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করলেও আগের লেগের অ্যাওয়ে গোলের হিসেবে শেষ ষোলোতে জায়গা পেয়েছে সেভিয়া। গেন্টের সঙ্গে ১-১ গোলে রোমা এবং বেনফিকার সঙ্গে ৩-৩ গোলে শাখতার ড্র করলেও অ্যাগ্রিগেটে এগিয়ে থাকায় পরের রাউন্ডে জায়গা পেয়েছে তারা। 

    আজ সন্ধ্যায় সুইজারল্যান্ডের নিয়নে ইউরোপা লিগের শেষ ষোলর ড্র অনুষ্ঠিত হবে।

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন