• ক্রিকেট

সৌম্য সরকারের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৫ বছর আজ

পোস্টটি ৩৭২৬ বার পঠিত হয়েছে
বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে আজকের এই দিনে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামেন সৌম্য সরকার। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২০১৪ সালের ডিসেম্বর ১ তারিখ শেরে-বাংলা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের হয়ে ওয়ানডে ম্যাচ খেলেন সৌম্য। ০১-১২-২০১৪ ই তারিখ থেকে সৌম্য সরকারের জাতীয় দলের অধ্যায় শুরু হয়, আর আজ ৫ বছর পূর্ণ হলো এ পেরিস্কোপ মাস্টারের। . ODI DEBUT 01-12-2014 Bangladesh VS Zimbabwe Shere Bangla National Stadium,Mirpur . শুরু হতে যাচ্ছিলো নতুন বছর "২০১৫", ২০১৪ সালকে বিদায় জানিয়ে। আর ঠিক তখন ই জিম্বাবুয়ের সাথে ওডিআই সিরিজের শেষ ম্যাচে, অর্থাৎ ৫ম ম্যাচে দেখা যায় সৌম্য নামক এক তরুণ ক্রিকেটারকে। আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের প্রথম ম্যাচেই সৌম্য সরকার দেখিয়ে ছিলেন নিজের প্রতিভা। মাএ ১৮ বলে ৪ চারে ২০ রানের ইনিংস। . পেয়ে ছিলেন এক ম্যাচের দুঃসাহসিক ইনিংসের সুবাদে বিশ্বকাপের টিকিট। হয়ে গেলেন বিশ্বকাপের ১৫ স্বপ্নসারথীর একজন। আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ২য় ম্যাচ খেলেন অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে তাও বিশ্বকাপে। ২০১৫ বিশ্বকাপের ১ম ম্যাচে জয় পায় বাংলাদেশ। সৌম্য করেছিলেন ২৫ বলে ০৩ চারে ও ০১ছয়ে ২৮ রান। ২০১৫ বিশ্বকাপে ২য় জয়'টি আসে ইংল্যান্ডের সাথে। করেছিলেন ৪০ রানের ইনিংস,যা ওই ম্যাচে ৩য় সর্বোচ্চ রান। সৌম্য ৫২ বলে ০৫ চারে ও ০১ ছয়ে ৪০ রান করে। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সাথে ৩য় উইকেটে ৮৬ রানের জুটি গড়েন সৌম্য। . 13-03-2015 Maiden Odi 50 Icc Cricket World Cup 2015 Bangladesh VS New-Zealand Seddon Park, Hamilton . ২৮৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশ ২৭ রানে ০২ উইকেট হারায়। আর এই ম্যাচে দারুণ ব্যাট করতে থাকে সৌম্য। সাইলেন্ট কিলার রিয়াদের সাথে ৯০ রানের জুটি গড়েন সৌম্য। আর সেই সাথে সৌম্য তুলে নেন ওডিআই ক্রিকেটে মেইডেন ফিফটি। ৫৮ বলে ০৭ চারে ৫১ রানের অসাধারণ ইনিংস খেলেন। বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচ'টি বাংলাদেশ ভারতের সাথে খেলে। বরাবরের ন্যায় সৌম্য ভালো শুরু করে ও ২৯ রানে আউট হয়ে ফিরে যান। ইনিংস'টি তে ০৩টি চার ও ০১টি ছয় ছিলো। বিশ্বকাপ'টি ভালোই কেটে ছিলো তরুণ ক্রিকেটার সৌম্য সরকারের। ২০১৫ বিশ্বকাপ মিশন শেষে বাংলাদেশের ১ম সিরিজ অনুষ্ঠিত হয় পাকিস্তানের সাথে বাংলাদেশের মাটিতে। সিরিজ টি ছিলো ০৩ ম্যাচের ওডিআই সিরিজ। মিরপুরে শুরু হয় ১ম ম্যাচ দিয়ে দ্বিপাক্ষিক ওডিআই সিরিজ'টি। সৌম্য ২০ রান করে রান আউট হয়ে ফিরে যান। ম্যাচ'টি তে বাংলাদেশ ৭৯ রানে জয় লাভ করে। ১ম ম্যাচের পর ২য় ম্যাচ'টি তে ও ০৭ উইকেটের জয় পায় বাংলাদেশ। সৌম্য ১১ বলে ০৪ চারে ১৭ রান করে। ৩য় ম্যাচে ঘুড়ে দাড়ায় সৌম্য সরকার।মিরপুর গ্যালারি জয়ের উল্লাসে ভাসছিল। আর সৌম্যর বাঘের হুংকার। 22-04-2015 Maiden Odi 100 Bangladesh VS Pakistan Shere Bangla National Stadium তামিম সৌম্য শুভ সূচনা শুরু করে ওপেনিং জুটি তে। ১ম উইকেটে ১৪৫ রানের জুটি গড়েন এ দুই ওপেনার। ১১০ বলে ১৩ চারে ও ০৬ ছয়ে ১১০.৪৫ স্ট্রাকরাইটে অপরাজিত ১২৭ রানের ইনিংস খেলেন সৌম্য। _____{প্লেয়ার অফ দ্য ম্যাচ সৌম্য সরকার}_____ মুশফিকুর রহিমের সাথে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে সৌম্য সরকার। আর পাকিস্তান'কে ১ম বারের মতো বাংলা ওয়াশ। জয়ের পর সৌম্য ও ম্যাশের বাঘের গর্জন। ম্যাচ'টি তে বাংলাদেশ ০৮ উইকেটের বিশাল জয় পায়। দেশের মাটিতে পাকিস্তানের পর সাউথ আফ্রিকা আসে ০৩ ম্যাচ ওডিআই সিরিজ খেলে বাংলাদেশ।আবার ও সেই চির চেনা সৌম্য সরকার। ১ম ম্যাচে সৌম্য ২৭ বলে ০৪ চারে ৩৭ রান করে।ম্যাচ'টি বাংলাদেশ হারে, ফলে সফরকারী আফ্রিকা ১তে সিরিজ এগিয়ে যায়। কিন্তু ২য় ম্যাচে এসে'ই ঘুড়ে দাড়ায় টাইগার'রা। . _____{প্লেয়ার অফ দ্য ম্যাচ সৌম্য সরকার}_____ ২য় ম্যাচে ১৬৩ রানের জবাবে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ দল। সৌম্য সরকার নেমেই আফ্রিকার বোলার দের উপরে তান্ডব শুরু করে। খেলেন অসাধারণ ইনিংস। ৭৯ বলে ১৩ চারে ও ০১ ছয়ে ১১১.৩৯ স্ট্রকরাইটে ৮৮* রান করেন। সৌম্যর অপরাজিত ইনিংসে ম্যাচ'টি তে বাংলাদেশ সহজ জয় লাভ করে ০৭ উইকেটে। . _____{প্লেয়ার অফ দ্য ম্যাচ সৌম্য সরকার}_____ দু'দলের জন্য ফাইনাল ম্যাচ ছিলো ৩য় ম্যাচ'টি, কেননা দু'দলই ১-১ সমতা করে ছিলো। ম্যাচ'টি তে বাংলাদেশ ১৬৯ রানের জবাবে ব্যাট করতে নামে। ২৬.১ ওভারে টাইগার'রা ০১ উইকেট হারিয়ে ১৭০ রান সংগ্রহ করে। আর উইকেট ছিলো সৌম্য'র। আর সৌম্যর আউট'টি আফসোস ছাড়া অন্য কিছু না। কেননা ৯০ রানের মাথায় সৌম্যর ইনিংস'টি শেষ হয়। . _____{প্লেয়ার অফ দ্য ম্যাচ সৌম্য সরকার}_____ সৌম্য ৭৫ বলে ১৩ চারে ও ০১ ছয়ে ৯০ রানের ইনিংস খেলে ইমরান তাহিরের বলে ক্যাচ আউট হয়ে ফিরে যান। এখনো ইনিংস'টি চোখে ভাসে ২য় ম্যাচের পর এ ম্যাচে ১৩টি চার ও ১টি ছয় হাকান। বাংলাদেশ ০৯ উইকেটের বিশাল জয় লাভ করে। ফলে ১-২ সিরিজ জয় হয় টাইগার'দের। . _____{প্লেয়ার অফ দ্য সিরিজ সৌম্য সরকার}____ ০৩ ম্যাচে ০৩ ইনিংস ১০২.৫০ এভারেজে ২০৫ রান সংগ্রহ করেন। সিরিজ'টি তে ২য় সর্বোচ্চ রান ছিলো প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান ফাফ ডু প্লেসিসের ১১০ রান। বিউটি পারফর্ম বাই সৌম্য সরকার। সবার নজর কেড়ে ছিলো পেরিস্কোপ শটে পাকিস্তানের ও আফ্রিকা'কে একাই নাস্তানাবুদ করেছেন সৌম্য সরকার। আফ্রিকার পর ধোনির নেতৃত্বে ভারত আসে ০৩ ম্যাচের ওডিআই সিরিজ খেলতে। #Tri_series ক্যারিবিয়ানদের সাথে টানা ০৩ ম্যাচে ৫০+ রানের ইনিংস খেলেন। আয়ারল্যান্ডে আয়োজিত বাংলাদেশ, উইন্ডিজ ও আয়ারল্যান্ড কে নিয়ে ট্রাই নেশন সিরিজে ব্যাট হাতে দারুণ ছন্দে ছিলেন সৌম্য সরকার। ১ম ম্যাচে ব্যাট হাতে করেছিলেন ৬৮ বলে ০৯ চারে ও ০১ছয়ে ৭৩ রান। ২য় ম্যাচে ও ৫৪ রান করেন ক্যারিবিয়ানদের সাথে।উইন্ডিজের সাথে ফাইনাল ম্যাচে ৪১ বলে ০৯ চারে ও ০৩ ছয়ে ৬৬ রান করেন
'প্যাভিলিয়ন ব্লগ’ একটি কমিউনিটি ব্লগ। প্যাভিলিয়ন ব্লগে প্রকাশিত লেখা, মন্তব্য, ছবি এবং ভিডিওর সম্পূর্ণ স্বত্ব এবং দায়দায়িত্ব লেখক এবং মন্তব্য প্রকাশকারীর নিজের। কোনো ব্যবহারকারীর মতামত বা ছবি-ভিডিওর কপিরাইট লঙ্ঘনের জন্য প্যাভিলিয়ন কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না। ব্লগের নীতিমালা ভঙ্গ হলেই কেবল সেই অনুযায়ী কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিবেন।