• ক্রিকেট

কবিতার একাদশ : দ্বিতীয় পর্ব (প্রথমাংশ)

পোস্টটি ৪০৮ বার পঠিত হয়েছে
'আউটফিল্ড’ একটি কমিউনিটি ব্লগ। এখানে প্রকাশিত সব লেখা-মন্তব্য-ছবি-ভিডিও প্যাভিলিয়ন পাঠকরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে নিজ উদ্যোগে করে থাকেন; তাই এসবের সম্পূর্ণ স্বত্ব এবং দায়দায়িত্ব লেখক ও মন্তব্য প্রকাশকারীর নিজের। কোনো ব্যবহারকারীর মতামত বা ছবি-ভিডিওর কপিরাইট লঙ্ঘনের জন্য প্যাভিলিয়ন কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না। ব্লগের নীতিমালা ভঙ্গ হলেই কেবল সেই অনুযায়ী কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিবেন।
ক্রিকেট নিয়ে কবিতা লেখা হয় মাঝেমধ্যেই। এই প্যাভিলিয়ন ব্লগেই প্রথম পর্ব বা প্রথম একাদশ প্রকাশিত হয়েছিল। আমার সৌভাগ্য বলতে হয়, সেই কবিতার একাদশ নিয়ে কেউ আপত্তি জানায়নি। বরং শুভাকাঙ্খী কেউ কেউ উৎসাহিত করেছেন। ব্যস, উন্মাদকে আশকারা দিলে যা হয় আর কি! দ্বিতীয় পর্ব বা কবিতার আরো একটি একাদশ সাজানোর স্পর্ধা করে বসেছি।
অনুরাগী এবং অনাগ্রহী সকলের প্রশ্রয়পূর্ণ আশকারা-ই বরাবরের মতো প্রত্যাশা।
 
__________________________________________________________
 
ইংরেজ ক্রিকেট লিখিয়েরা বেশ কয়েকটা পোকা ঢুকিয়ে দিয়েছেন মাথায়। একটা হচ্ছে ক্রিকেট সাহিত্য। ক্রিকেট নিয়ে গল্প। আর অন্যটা হচ্ছে কবিতা। তো পোকাদের যন্ত্রণায় অতিষ্ঠ হয়ে বেশ কিছু কবিতা কিভাবে কিভাবে যেন লেখা হয়ে গেছে! এবং সেসব দিয়ে একাদশ একটি গিয়ে আরো একটি দাঁড় করানো যাচ্ছে। তবে এবারকার একাদশটি বোধহয় প্রথম একাদশের তুলনায় তুলনামূলক ভারসাম্যপূর্ণ। আগেরবার যেখানে উইকেট কিপারের অভাব ছিল চোখে পড়ার মতো, রাহুল দ্রাবিড় কে দিয়ে কোনোমতে কাজ চালিয়ে নেয়া। এবার সেখানে উইকেট কিপারের খামতি নেই। গত একাদশে অলরাউন্ডার ছিল একগাদা, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের অবস্থান হয়েছিল নয় নাম্বারে। মাশরাফি-বেন স্টোকস-ক্যালিস দিয়ে পেস এ্যাটাক দাঁড়িয়েছিল, এবার পেস আক্রমণে আছে নমস্য সব নাম। স্পিন আক্রমণে আছে অলটাইম গ্রেট, তিন-চার-পাঁচ খুব সম্ভব যেকোনো একাদশে পরম আকাঙ্খিত। একটাই সমস্যা সাঙ্গাকারা ওপেনিংয়ে। আগেরবার তিনটে ওপেনার পেয়েছিলাম, এবার সাঙ্গাকারাকে ওপেনিংয়ে না পাঠিয়ে উপায় নেই আমাদের।
 
দেখা যাক কেমন হলো এবারের একাদশ।
__________________________________________________________
 
ইনিংসের সূচনায় থাকছেন — তামিম ইকবাল ও কুমার সাঙ্গাকারা
 
আমাদের সেই ছেলে
 
একদা তাহার সাঁড়াশি আক্রমণ, আর সাহসী প্রতিঘাত
জনতার বুকে বিমুগ্ধ-ঢেউ; বেঁচে থাকো— আশীর্বাদ।
চোখে চোখ রেখে কথা বলা, ব্যাটে বুনো হুঙ্কার
কে দেখেছে কবে, এক বাংলাদেশীর অমন অহঙ্কার!
 
ভয়ের সঙ্গে পরিচয় নেই, যেন দুঃসাহসের চূড়ায় বাস
চূড়াটা দেখিয়ে দিলে— ব্যস, পাড়ি দেয়া তার অভ্যাস।
কত-শত অর্জন, কত বিজয়-উপাখ্যান, তার হাত ধরে
বাংলাদেশ ক্রিকেট জুড়ে নামটি লেখা যত্ন-সহকারে।
 
আগ্রাসনের অন্য নাম যে, সে নিজেকে ভেঙেচুরে হঠাৎ
যেনো কোনো ধ্যানী-ঋষি, নিঃসীম সংযমে প্রতিভাত।
সকলের সেরা হওয়ার মনোবাসনা, লক্ষ্যে দৃঢ়-অবিচল
আমাদের দেশে হবে সেই ছেলে কবে—ফুরালো প্রশ্ন-সকল।
 
ব্যাটে তার বসন্ত নামে, ভরা-যৌবন, অবাক রান-উৎসব
জনতার চোখে স্বপ্ন-খেলে, একজন দশহাজারী-ভবিষ্যৎ।
সুউচ্চ পর্বত পদাবনত হবে তার, একদিন সে হবে সম্রাট
বাংলাদেশ তো বটেই, বিশ্বক্রিকেটেও হবে নমস্য-বিরাট।
 
তারপর, বয়স বাড়ে, সুসময় পক্ষ বদলে তাকে ছেড়ে গেলে
২২ গজের চিরায়ত প্রান্ত-বদল সমস্যা তখন প্রকট হলে,
তাকে নিয়ে কত বিদ্রুপ-হাস্যরস, সেও যেন কেমন নবিস-মতন
বুভুক্ষুর ন্যায় রান-ক্ষুধা, শ্রেষ্ঠত্বের অভিলাষ, সব ভুলেছে কখন!
 
গুণে গুণে চার আঙুল বা লর্ডসের অনার্স-বোর্ডে তোলা নাম
সক্ষমতা জানা আছে, ক্রিকেট-প্রহরে আছে লেখা সাক্ষ্যপ্রমাণ।
তবে কেন পথভোলা পথিকের মতো দিকহারা অচেনা আচরণ?
সাড়া দাও সম্রাট, চেনা-সুরে নবরুপে আবার হোক নব-জাগরণ।
১৮ই নভেম্বর, ২০২০
 
 
সেই জাদুকর
 
আপনি তাঁকে দেখবেন, একবার, দুইবার, বারবার
প্রতিবার যেনো আঁকা হবে চোখে মুগ্ধতা-অপার।
আপনি তাঁকে শুনবেন, আশ্চর্য তাঁর বাচন ভঙিমা
ব্যকরণ হাতে বিহ্বল, কই যুৎসই বিশেষণ-উপমা?
 
মাঠে বা ডায়াসে সমান সপ্রতিভ; স্রেফ অসাধারণ
যেন জন্মই তাঁর জাদুকাঠি হাতে, শুধু মঞ্চটা প্রয়োজন।
ফ্রন্ট ফুটে কাভার ড্রাইভ, কী অসম্ভব আভিজাত্য!
ফ্লিক বা পুলে দারুণ নিয়ন্ত্রণ, ব্যাটের সঞ্চালন মাত্র।
 
ত্রি-কাঠিকে আগলে রাখেন, ফাঁকি দেয় কার সাধ্যি
যেন জমাট কোনো স্তম্ভ, তাঁকে সরায় কোন সে বদ্যি!
ক্লান্তিহীন-রান মেশিন, বুঝি এ যুগের নয়া স্যার ডন
তিনি আপনাকে মুগ্ধ করবেনই, শত্রু-মিত্র যে-ই হন।
 
বনেদিয়ানা তাঁর ব্যক্তিত্বে, মুন্সিয়ানাও ব্যাটে বা নেতৃত্বে
লঙ্কাদ্বীপের সেরাদের একজন তিনি, গুণে-মানে-শ্রেষ্ঠত্বে।
ক্রিকেটের ২২ গজ তাঁকে পেয়ে ধন্য, অনন্য অর্জন কত!
ইতিহাসে মিশে আছে কত-শত লেখাজোখা আর মূর্ত-মুহূর্ত।
 
জানি, তিনি আপনাকে বশ করবেন, আপনি হবেন বশীভূত
কুমার সাঙ্গাকারা সেই জাদুকর, আপনি কেবলি যার গুণমুগ্ধ।
২৫শে আগস্ট, ২০২০
 
 
তিন নাম্বারে থাকছেন ব্যাটিং সম্রাট — স্যার ডন ব্র্যাডম্যান
 
ব্যাটিং সম্রাট বলছি
 
ব্যাটিং সম্রাট আমি, ক্রিকেটের অবিসংবাদিত মহানায়ক
স্তুবগান হাতে ঘুরঘুর করে দেখো কত-শত-সহস্র স্তাবক।
ক্রিকেট শুধু কেনো? আমি মহাবিশ্বের শ্রেষ্ঠতম ক্রীড়াবিদ
জেনো কীর্তিমানের মৃত্যু নেই, কীর্তিবলেই অমরত্ব সুনিশ্চিত।
পৃথিবীর বুকে উজ্জ্বল সূর্যের মতো ক্রিকেট-মাঝে এই আমি,
ক্রিকেট মাঠের এক শ্রীমান দীপ্তিমান, অন্যসব মলিন, অনামী।
মাঠের সবুজ ঘাসে আমিই চিত্রকর, জমিদার, আমিই রাজা
মনে হবে বাকিরা গোলাম বুঝি, নিতান্ত তুচ্ছ ভৃত্য বা প্রজা।
 
দাপট-প্রতাপ-সক্ষমতার সহস্র প্রমাণ-সাবুদ তুড়িতেই হাজির
কিংবদন্তী তালিকার প্রথম নামটি জানি, আমাতেই হয় স্থির।
রান-গড় বা দল পরিচালনার কত কী-তে শ্রেষ্ঠত্বের স্বাক্ষর
কারিকুরি কত কি-যে অবাক-বিস্ময়কর এবং অবিনশ্বর।
এক বঙ্গ-পাগল পদ্যের নামে ধুচ্ছাই কি লিখে কে জানে!
ব্যাটা ছাড়েনি আমাকেও; অগভীর, সস্তা শব্দ-আয়োজনে।
আমি ব্যাটিং সম্রাট, আমাকে বর্ণনা সকলের কম্ম নয় হে!
এবারের মতো ক্ষমা দিলাম, আর যেন সাহস না করে সে।
২৭শে আগস্ট, ২০২০
 
মিডল অর্ডার, চার-পাঁচ-ছয়-সাত সামলাবেন — মোঃ ইউসুফ, এন্ডি ফ্লাওয়ার, মুশফিকুর রহিম ও মোঃ আশরাফুল
 
ইউসুফ নামের তারা
 
কী সৌভাগ্য আমার! ব্যাটিং সম্রাটেরর সঙ্গে মিলে গেছে জন্মদিনটা—
তাঁর মতো আমিও ডানহাতি, এবং সন-২০০৬; মিল আছে এই দিকটা,
আর কিছুতে তাঁর মতো নই, তাই বলে খুব কি মন্দ ছিলাম, এই আমিটা?
উঁহু! নেতৃত্বের কথা তোলো না একদম, জানি ভাই ওটাতে আমি লবডঙ্কা।
 
হ্যাঁ, সত্যি এটাও, হাই ব্যাকলিফটের সেই ট্রেডমার্ক শট চোখে ভাসে কারো—
কেউ কেউ শিল্পী ভাবে, যেন তুলি হাতে নেমে পড়া সবুজ মাঠের পিকাসো।
রঙকেলিতে রাঙিয়ে দেয়া, সৃষ্টিসুখের উচ্ছ্বাস আর রোমাঞ্চ, কত কতবার!
উঁহু! আত্মপ্রচারী নই, যদি সত্যি না-হয় তা, তবে মিথ্যে দু’চোখ ঐ মুগ্ধ-জনতার।
 
ক্রিকেটের আকাশজুড়ে উঠে-নামে কত তারা, ঝিকমিক, উজ্জ্বল, অপরুপ
একদা সে আকাশ দখলে ছিল একটি তারার, নাম যার— মোহাম্মদ ইউসুফ।
যেমন দ্যুতি ছড়ানোর কথা ছিল, তেমন হয়নি, তবু জানি স্মৃতিতটে অমলিন
তাই, ক্রিকেটের কাছে আমার জমে আছে জেনো অজস্র অপরিশোধ্য ঋণ!
২৭শে আগস্ট, ২০২০
 
________________________________________

ব্লগের শব্দ সংখ্যা সীমাবদ্ধতার কারণে এক লেখায় একাদশটা সম্পূর্ণ করা গেল না, একাদশের বাকিটা দ্বিতীয় অংশে।

________________________________________
 
এবারের কবিতার একাদশটা এক নজরে চোখ বুলিয়ে নেয়া যাক—
 
তামিম ইকবাল, কুমার সাঙ্গাকারা, ডন ব্র্যাডম্যান, মোহাম্মদ ইউসুফ, এন্ডি ফ্লাওয়ার, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ আশরাফুল, শেন ওয়ার্ন, হেনরি ওলোঙ্গা, জেমস এন্ডারসন ও গ্লেন ম্যাকগ্রা।
 
কবিতার একাদশ-এর প্রথম পর্বের লিংক...
https://pavilion.com.bd/user/feeds/4646/details
_________________________________________________________