• ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯
  • " />

     

    ইংলিশ সমর্থকদের দুয়ো গায়ে লাগাননি স্মিথ

    ইংল্যান্ডের দর্শক যে তাকে দুয়ো দিয়েই অভিবাদন জানাবেন, সেটা বোধহয় তিনি নিজেও জানতেন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ম্যাচে ব্যাটিংয়ে নামার পর থেকেই হ্যাম্পশায়ারের দর্শকের দুয়ো শুনতে হয়েছে স্টিভ স্মিথকে। স্মিথ অবশ্য সেটার জবাবটা দিয়েছেন দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরিতেই। স্মিথ বলছেন, ইংলিশ সমর্থকদের দুয়ো গায়েই লাগাননি তিনি।

    বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারিতে এক বছর নিষিদ্ধ ছিলেন স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরছেন বিশ্বকাপ দিয়েই। বিশ্বকাপে ইংলিশ সমর্থকরা যে বারবার তাদের ওই ঘটনার কথা মনে করিয়ে দেবেন, সেটা ধারণা করছিলেন অনেকেই। গতকাল প্রস্তুতি ম্যাচেও হলো সেটাই। দুয়োর পাশাপাশি অবশ্য হাততালিও পেয়েছেন ফিফটি ও সেঞ্চুরির পর, স্মিথ শেষ পর্যন্ত করেছেন ১১৬ রান।

    স্মিথ বলছেন, দর্শকের দুয়োতে তাঁর কিছুই আসে যায় না, ‘যখন আমি ব্যাটিংয়ে নামছি, তখন বেশ কিছু কথা শুনেছি। কিন্তু ওসব আসলে আমার গায়ে লাগেনি। ক্রিজে নিজের কাজটা করা নিয়েই মনোযোগী ছিলাম। সেঞ্চুরি পেয়েছি, দলের জয়ে ভূমিকা রাখতে পেরেছি, ক্রিজে অনেকটা সময়ও কাটিয়েছি বিশ্বকাপের আগে; এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার।’

     

     

    খেলার সময় কখনোই দর্শকের কথায় কান দেন না স্মিথ, ‘দলের হয়ে যদি কিছু করতে পারি, সেটাই আমার বড় সাফল্য। কে কী বলল, দর্শকসারি থেকে কী দুয়ো ভেসে এলো, সেসব নিয়ে কখনোই মাথা ঘামাই না। আমাকে নিয়ে যে কিছু বলা হচ্ছে, সেটাই মাথাই আসতে দেই না।’

     

    ইংল্যান্ডের মানুষ যেন স্মিথ-ওয়ার্নারদের সাথে খারাপ আচরণ না করে, সেই ব্যাপারে অনুরোধ করেছিলেন ইংলিশ অলরাউন্ডার মঈন আলি। স্মিথ জানালেন, ইংল্যান্ডের আসার পর কেউ তাঁর সাথে ওরকম আচরণ করেননি, ‘এখানে আসার পর থেকে খারাপ কিছুর মুখোমুখি হতে হয়নি। সবাই তাদের মতামত দিয়েছে ওই সময়ে। কিন্তু হাসের গায়ে যেমন পানি লাগে না, আমার ক্ষেত্রেও সেটা হয়েছে।’