• পাকিস্তানের ইংল্যান্ড সফর ২০২০
  • " />

     

    করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ক্রিকেটারদের প্রতি পিসিবির আচরণে ক্ষুব্ধ ইনজামাম

    কভিড-১৯ পজিটিভ আসা ক্রিকেটারদের প্রতি পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের আচরণের সমালোচনা করেছেন সাবেক অধিনায়ক ও প্রধান নির্বাচক ইনজামাম-উল-হক। তার মতে, যাদের পজিটিভ এসেছে, তাদেরকে বাড়ি পাঠানো উচিৎ হয়নি মোটেও। মোহাম্মদ হাফিজের পজিটিভ-নেগেটিভ কান্ড আরও ভালভাবে সামলানো যেতো বলেও মনে করেন তিনি। পিসিবির মেডিকেল স্টাফ ক্রিকেটারদের ফোন ধরেননি, এমনও দাবি করেছেন তিনি। 

    পাকিস্তানের ইংল্যান্ডের সফরের স্কোয়াডে থাকা ক্রিকেটারদের প্রথম দফা ৩ জনের পর আরও ৭ জনের কভিড-১৯ পজিটিভ এসেছিল। তাদেরকে ব্যক্তিগতভাবে হোম-আইসোলেশনে থাকতে বলেছে পিসিবি। ইনজামাম বলছেন, এ সময়ে তাদের যে পরিচর্যা করা দরকার, সেটি জাতীয় একাডেমিতে রেখেই করা যেতো, “পিসিবির উচিত ছিল যাদের পজিটিভ এসেছে, তাদেরকে নিজেদের বাসায় আইসোলেশনে থাকতে না বলে জাতীয় ক্রিকেট একাডেমিতে রাখা, কারণ সেখানে পর্যাপ্ত জায়গা আছে। যাতে করা তাদের দেখভাল করা যায়। আমাদের এসব ক্রিকেটারের পুরোপুরি সেরে ওঠার দিকে নজর দিতে হবে।” 

    নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ইনজামাম এসব ক্রিকেটারের প্রতি পিসিবির আচরণেও ক্ষুব্ধ, “যেসব ক্রিকেটারের পজিটিভ এসেছে, তারা নিশ্চয়ই ভেবে থাকবে যে এই কঠিন সময়ে পিসিবি তাদের সহায়তা করবে। আমার সূত্র বলেছে, পিসিবির মেডিকেল স্টাফরা এসব ক্রিকেটারের ফোনও ধরেননি, যেটি খুবই বাজে আচরণ।” 
     

    আরও পড়ুন- করোনাভাইরাসের পর ক্রিকেটে কোন দেশ কবে ফিরছে?


    পজিটিভ আসা ক্রিকেটাদের মাঝে ছিলেন মোহাম্মদ হাফিজ, ওয়াহাব রিয়াজ, ফাখার জামানরা। এর মাঝে হাফিজ ও রিয়াজ ব্যক্তিগতভাবে টেস্ট করিয়েছিলেন, যেখানে ফল এসেছিল নেগেটিভ। পরে পিসিবির করা আরেকদফা টেস্টেও তারা নেগেটিভ হয়েছিলেন। 

    নিয়ম অনুযায়ী, দুই দফা নেগেটিভ আসলেই সেসব ক্রিকেটাররা ইংল্যান্ড সফরে যেতে পারবেন। এরই মাঝে রবিবার ইংল্যান্ডের উদ্দেশ্যে ২০ জনের পাকিস্তান স্কোয়াড রওনা হয়েও গেছে। তবে সেখানে নেই হাফিজ-রিয়াজরা। পিসিবি বলেছে, তাদের করানো টেস্টে দুইবার নেগেটিভ আসলেই শুধু ইংল্যান্ড সফরে যেতে পারবেন তারা। হাফিজ-রিয়াজদের তাই পিসিবির পক্ষ থেকে করানো আরেকবার টেস্টের ভেতর দিয়েই যেতে হবে। 

    “আমি পিসিবিকে অনুরোধ করবো, এসব ব্যাপারে খেয়াল রাখতে, ক্রিকেটারদের দিকে নজর দিতে। নাহলে হাফিজ নিজে টেস্ট করিয়ে যে নেগেটিভ এলো, এমন ঘটনা ঘটতেই থাকবে”, বলেছেন ইনজামাম। 

    অবশ্য হাফিজের এই টেস্টের কথা বলে টুইট করা উচিৎ হয়নি বলেও মনে করেন তিনি। বোর্ডের সঙ্গে এক্ষেত্রে ক্রিকেটারদের একটা দূরত্ব আছে, এমন বলেছেন তিনি। 

    তিনটি করে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি খেলতে ইংল্যান্ড যাচ্ছে পাকিস্তান। শুরুতে সেখানে গিয়ে উস্টারশায়ারে কোয়ারান্টাইনে থাকার পর ডার্বিশায়ারে প্রস্তুতি শুরু করবেন তারা। পিসিবি বলেছে, যারা পাকিস্তান রয়ে গেছেন, তাদের দুই দফা নেগেটিভ এলেই পাঠানো হবে ইংল্যান্ডে। 
     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন