• ইউএস ওপেন
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    মাস্ক পরে ইউএস ওপেনে নাওমি ওসাকার অন্যরকম 'প্রতিবাদ'

    ইউএস ওপেনে ভিন্ন ধরনের মাস্ক পরে প্রশংসা কুড়াচ্ছেন জাপানের নারী টেনিস তারকা নাওমি ওসাকা। টুর্নামেন্টের প্রত্যেক রাউন্ডে কালো মাস্ক পরে খেলছেন তিনি, আর প্রতিটি ম্যাচে তার মাস্কের ওপর সাদা অক্ষরে লেখা থাকছে যুক্তরাষ্ট্রে বর্ণবৈষম্যের শিকার হয়ে প্রাণ হারানো কোনো এক ব্যক্তির নাম।

    বুধবার কোয়ার্টার ফাইনালে যুক্তরাষ্ট্রের শেলবি রজার্সকে ৬-৩, ৬-৪ সেটে হারিয়ে সেমিফাইনালে উঠে গেছেন ওসাকা। ফাইনাল পর্যন্ত গেলে সাতটি ম্যাচ খেলার কথা ওসাকার, আর সেজন্য সাতজন কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তির নাম সম্বলিত সাতটি মাস্ক নিয়ে ইউএস ওপেনে এসেছেন তিনি। দুবারের গ্র্যান্ডস্লাম জয়ী ওসাকার এই কাজের জন্য ইএসপিএনের ইউএস ওপেন সম্প্রচারের সময় লাইভে ধন্যবাদ জানিয়েছেন নিহত কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তিদের পরিবারের সদস্যরা।
     


    ওয়াশিংটন পোস্টের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে তার এই কাজের কারণ ব্যাখ্যা করেছেন ওসাকা, “সারাবিশ্বে মানুষ টেনিস দেখে। তাদের মাঝে কেউ হয়ত ব্রেওনা টেইলরের (নিজ গৃহে পুলিশের হাতে নিহত হয়েছিলেন) গল্পটা জানে না। আমি মানুষের মাঝে সচেতনতা তৈরির জন্যই এটা করছি। যাতে বিষয়টি নিয়ে তাদের আগ্রহ বাড়ে। এটা দুঃখজনক যে, যত মানুষ মারা গেছে তাদের সবার নামের জন্য সাতটি মাস্ক যথেষ্ট নয়।”

    জাপানে জন্ম নিয়েছেন, আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টগুলোতে জাপানের পতাকা ধারণ করেই খেলেন। তবে ওসাকা বেড়ে উঠেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায়। আর সেজন্যই দেশটিতে কৃষ্ণাঙ্গদের বিরুদ্ধে সহিংসতা পোড়ায় তাকে। সপ্তাহ দুয়েক আগে জেকব ব্লেক নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তি পুলিশের গুলিতে আহত হওয়ার পর ওয়েস্টার্ন এন্ড সাউদার্ন ওপেনের সেমিফাইনাল থেকে নিজেকে প্রথমে সরিয়ে নিয়েছিলেন ওসাকা। পরে ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার টি-শার্ট পরে সেই ম্যাচে অংশ নেন তিনি।

    আসরের চতুর্থ বাছাই ওসাকা সেমিফাইনালে যুক্তরাষ্ট্রের জেনিফার ব্র্যাডির বিপক্ষে খেলবেন। ২০১৮ সালে ইউএস ওপেন জিতেছিলেন ওসাকা, আর সেটিই ছিল তার প্রথম গ্র্যান্ডস্লাম।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন