• ফুটবল

Luton Town - A true story of Motivation, Ups & Downs and Bouncing Back!

পোস্টটি ৬৭৯ বার পঠিত হয়েছে
'আউটফিল্ড’ একটি কমিউনিটি ব্লগ। এখানে প্রকাশিত সব লেখা-মন্তব্য-ছবি-ভিডিও প্যাভিলিয়ন পাঠকরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে নিজ উদ্যোগে করে থাকেন; তাই এসবের সম্পূর্ণ স্বত্ব এবং দায়দায়িত্ব লেখক ও মন্তব্য প্রকাশকারীর নিজের। কোনো ব্যবহারকারীর মতামত বা ছবি-ভিডিওর কপিরাইট লঙ্ঘনের জন্য প্যাভিলিয়ন কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না। ব্লগের নীতিমালা ভঙ্গ হলেই কেবল সেই অনুযায়ী কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিবেন।

 

সম্প্রতি চ্যাম্পিয়নশিপ প্লে অফে কভেন্ট্রি সিটিকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো 'প্রিমিয়ার লিগ' খেলার যোগ্যতা অর্জন করে নেয় লুটন টাউন। ২০২৩/২৪ মৌসুমে ইংল্যান্ডের টপ ফ্লাইট ফুটবলে খেলবে তারা। 

 

সবচেয়ে বড় ইন্টারেস্টিং বিষয় হচ্ছে, লুটন টাউন প্রথম ক্লাব যারা 'নন ফুটবল লীগ' থেকে প্রিমিয়ার লীগ ফুটবলে প্রমোশন পায়। এই যাত্রা এতো মধুর ছিলো না।

 

লুটন টাউন ১৮৮৫ সালের ১১ই এপ্রিল  ইংল্যান্ডের পূর্বাঞ্চলের প্রসিদ্ধ শহর ব্র্যাডফর্ডশায়ারে প্রতিষ্ঠিত হয়। ক্লাবের নিকনেইম হচ্ছে - দ্যা হ্যাটার্স (The Hatters)।  এই শহরটি টুপি বা হ্যাট তৈরির জন্য বেশ পরিচিত।  ক্লাবের লোগোতেও খেয়াল করলে দেখতে পারবেন টুপির ছবি। সেখান থেকেই তাদের নিকনেম হয় 'দ্যা হ্যাটার্স'। তাদের মেইন রাইভাল হচ্ছে ওয়াটফর্ড। 

afc3b9fa-17d8-495c-8b2b-aadd8d057909

লুটনের ইংলিশ ফুটবলে অভিষেক হয় ১৮৯৭-৯৮ মৌসুমে। কিন্তু আর্থিক সমস্যার কারণে ১৯০০ সালে লীগ থেকে বেরিয়ে আসে এবং পুনরায় ১৯২০ সালে যোগ দেয়। তখন থেকেই শুরু হয় উত্থান পতনের ইতিহাস। 

লুটন প্রথমবারের মতো প্রিমিয়ার লিগ ফুটবল খেলবে এটা ঠিক, তবে এর আগেও তারা টপ টায়ার লিগে খেলেছিল। শেষবার খেলে ১৯৯১/৯২ মৌসুমে।

আজকের প্রিমিয়ার লীগ তখন 'ফার্স্ট ডিভিশন' হিসেবে পরিচিত হয়। অর্থ্যাৎ নতুন করে প্রিমিয়ার লীগ ফুটবল চালু হবার পর কখনোই খেলা হয়নি লুটনের। 

 

Story of Ups and Downs:

 

- ১৯৯১/৯২ মৌসুমে ফার্স্ট ডিভিশন রেলিগেটেড হবার ৪ বছরের মাথায় থার্ড টায়ার ফুটবলে চলে আসে লুটন। 

 

- ২০০২-২০০৪ সাল পর্যন্ত খেলে থার্ড টায়ারে। সেখান থেকে প্রোমোট পেয়ে ২০০৫ -২০০৭ সাল পর্যন্ত ২ মৌসুম চ্যাম্পিয়নশীপে ছিলো লুটন। তারপর আবারো অবনমনের মুখে পড়তে থাকে ক্লাবটি। সাথে আবারো বাধা হয়ে আসে আর্থিক ইস্যু। 

 

- ২০০৮-০৯ মৌসুমে আর্থিক অনেক অনিয়ম ও অসঙ্গতির কারণে FA তাদের ৩০ পয়েন্ট কেটে নেয়। ২০০৯ সালে তারা একদম ন্যাশনাল লিগে চলে যায় যেটি ইংল্যান্ডের ফুটবল স্ট্রাকচারের সর্বনিম্ন স্তর।

 

The Comeback story:

 

২০০৯ থেকে ২০২৩ - এই ১৪ বছরের মাথায় আবারো ঘুরে দাঁড়ায় ক্লাবটি। 

GettyImages-1255313914

ন্যাশনাল লীগ জয় করে ২০১৪/১৫ মৌসুমে উঠে আসে লীগ টু তে। লীগ টু থেকে লীগ ওয়ানে প্রমোশন পায় ২০১৮/১৯ সালে। সেখান থেকে এক ধাক্কায় পরের মৌসুমে চ্যাম্পিয়নশিপে চলে আসে ক্লাবটি।এরপর এই ৫ বছরের মাথায় ইতিহাস তৈরি করে টপ টায়ার ফুটবলে আবারো ব্যাক করে লুটন টাউন।

 

তাদের স্টেডিয়াম নিয়েও বেশ কয়েকদিন ধরে আলোচনা হচ্ছে। স্টেডিয়ামটির ধারণক্ষমতা মাত্র ১০,৩৫৬। বেশকিছু রেসিডেনশিয়াল বিল্ডিং ক্রস করে সেখানে যাওয়া লাগে। এই স্টেডিয়াম সংস্কার করার জন্যে এখন প্রয়োজন ১০ মিলিয়ন ইউরো।

_108201159_gettyimages-656672884

একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে প্রমোশনের পর যদি কোনো দল প্রথম মৌসুম নিজেদের অবনমনের হাত থেকে রক্ষা করতে পারে তাহলে তাদের রেভিনিউ এর পরিমাণ ১৩৫ মিলিয়ন ইউরো থেকে ২৬৫ মিলিয়ন ইউরো পর্যন্ত হয়ে থাকে। প্লে অফ বিজয়ী দল হিসেবে লুটন আগামী ৩ মৌসুমে প্রিমিয়ার লীগ থেকে ১৭৮ মিলিয়ন ইউরোর মতো পাবে।

 

এইতো ১০ বছর আগেও যারা ইংল্যান্ডের লোয়েস্ট লীগে নিয়মিত খেলতো, যাদের নিজস্ব কোনো ট্রেনিং গ্রাউন্ড ছিলো না, ন্যাশনাল পার্কে প্লেয়াররা প্র্যাকটিস করতো, সেই ক্লাব সামনের মৌসুমে খেলবে ইউরোপ তথা বিশ্বের অন্যতম সেরা লীগে!

 

A journey that the football fans will never forget!

Welcome to Premier League Football Luton Town!