• ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইংল্যান্ড সফর ২০২০
  • " />

     

    নেট সেশন : নিস্তব্ধতা ভেঙে ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজে ক্রিকেট ফেরার গান

    ১ম টেস্ট
    ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ

    কবে, কখন
    ৮-১২ জুলাই, ২০২০
    বাংলাদেশ সময় ৪ টা (১৬০০)


    আইসিসির ভিডিওটা হয়তো দেখে ফেলেছেন, ‘ওয়েলকাম ব্যাক, ক্রিকেট। ইউ হ্যাভ বিন মিসড’। হয়তো ৮ জুলাই তারিখটার জন্য অপেক্ষা করছেন মাসখানেকেরও বেশি সময় ধরে। এদিন ফিরছে ক্রিকেট। মনুষ্য পৃথিবী এখনও স্বাভাবিকত্ব ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করে যাচ্ছে, কভিড-১৯ যে ক্ষত তৈরি করছে, সেটি পূরণ করতে কতোদিন সময় লাগবে তা তো নিশ্চিত নয়। এর মাঝেই ক্রিকেট ফিরছে। তবে ভিন্নরূপে। 

    বার্মি আর্মির বিউগল শুনবেন না ইংল্যান্ডের মাঠে, তবে ব্যাট-বলের (লাইভ) শব্দটার জন্যও কি অপেক্ষা করে ছিলেন না আপনি! ইংল্যান্ডের প্রস্তুতি ম্যাচের স্ট্রিমিংটা হয়তো দেখেছেন, কিন্তু সেখানে তো শব্দ ছিল না। আপনার জীবনে স্বাভাবিকতা হয়তো ফিরিয়ে আনবে না এই ম্যাচ, সেটি হয়তো বদলে গেছে একটা লম্বা সময়ের জন্যই। তবে একটা আবহ তো তৈরি করবে অন্তত। টিভি অন করে নির্দিষ্ট একটা চ্যানেলে যাওয়া, লাইভস্কোরের জন্য ফোনের অ্যাপে ঢুঁ মারা-- টং দোকানে চায়ের আড্ডাটা ফিরতে হয়তো দেরি আছে, এসব তো ফিরছে অন্তত!

    ইংল্যান্ড মার্চে গিয়েছিল শ্রীলঙ্কায়, টেস্ট সিরিজ খেলতে। তবে প্রস্তুতি ম্যাচ মাঝপথে রেখেই তারা ফিরে গেছে নিজদেশে। অস্ট্রেলিয়া উইমেনস টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে রেকর্ডসংখ্যক দর্শক দেখার পর দর্শকশূন্য মাঠে একটা ওয়ানডে খেলেছিল নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। ওই শেষ। ২৯ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া ভারত-নিউজিল্যান্ডের ম্যাচ হয়ে আছে এখন পর্যন্ত শেষ টেস্ট, অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের ওই ওয়ানডে শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ। 

    এরপর একের পর এক সিরিজ বাতিল হয়েছে, আপনি শুধু পড়েছেন স্থগিত আর বাতিলের খবর। ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড নিজেদের ঘরোয়া আন্তর্জাতিক মৌসুমের পুরোটা নষ্ট করতে চায়নি, তাদের ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে নাম লেখানো বছরখানেকের জন্য পিছিয়ে গেলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ঠিকই নিজদেশে এনেছে তারা। একটা বলয় তৈরি করে, যেটিকে কার্যত বিবেচনা করা হচ্ছে কভিড-১৯ মুক্ত অঞ্চল। ওয়েস্ট ইন্ডিজের তিনজন ক্রিকেটার নিজেদের সরিয়ে নিয়েছেন এ সফর থেকে, সেটিকেও তাই অস্বাভাবিক হিসেবে দেখার উপায় নেই। যুক্তরাজ্যের তুলনায় কভিড-১৯ তো ক্যারিবীয় দ্বীপরাষ্ট্রগুলিকে সেভাবে আঘাত করেনি! 
     


    এজিয়েস বোউলে অনুশীলনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ স্পিনার রাহকিম কর্নওয়াল/এজিয়েস বোউল টুইটার


    কিন্তু শেষ পর্যন্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজ গড়েছে ইতিহাস। প্রথম আন্তর্জাতিক দল হিসেবে সফরে গেছে তারা। এমনিতে দুই দলের টেস্ট সিরিজের ট্রফির নাম উইজডেন ট্রফি, তবে এ সিরিজের আলাদা একটা নাম দেওয়া হয়েছে-- #রেইজদ্যব্যাটসিরিজ। কভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে যেসব কর্মী কাজ করে যাচ্ছেন, এ সিরিজ দিয়ে তাদেরকে জানানো হবে শ্রদ্ধা। 

    কভিড-১৯ এর মহামারির মাঝেই বিশ্ব কেঁপেছে আরেক আন্দোলনে- ‘ব্ল্যাক লাইভস মেটার’। বর্ণবাদের বিপক্ষে যুক্তরাষ্ট্রে শুরু হওয়া সে আন্দোলনের রেশ লেগেছে পুরো বিশ্বেই। ওয়েস্ট ইন্ডিজ তাদের শার্টে ‘বিএলএম’ লোগো পরে নামার ঘোষণা দিয়েছে আগেই, ইংল্যান্ডও পরে করেছে এমনই। 

    এতোকিছুর পরও লড়াইটা তো ক্রিকেট মাঠেই। ২০১৯ সালে নিজেদের মাটিতে সর্বশেষ সিরিজে প্রথম টেস্ট হারার পরও ইংল্যান্ডকে উড়িয়ে দিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলিং আক্রমণ। তার আগের সিরিজে ইংল্যান্ড জিতেছিল ঠিকই, তবে হেডিংলিতে শেই হোপে ভর করে দারুণ এক রানতাড়া করেছিল উইন্ডিজ। 

    শেষ পর্যন্ত এ সিরিজেও একটা ফল থাকবে। তবে হয়তো সেটিকেও ছাপিয়ে যাবে এর ফেরার বার্তাটা-- এ সিরিজ দিয়েই যে মাঠে ফিরেছিল টেস্ট ক্রিকেট, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। 

     

    রঙ্গমঞ্চ
    এজিয়েস বোউল, সাউথাম্পটন

    ২০১১ সালে টেস্ট ভেন্যু হিসেবে অভিষেক হয়েছিল হ্যাম্পশায়ারের ঘরের মাঠের। কিন্তু এখন পর্যন্ত এ মাঠে টেস্ট হয়েছে মাত্র তিনটি। সেই এজিয়েস বোউলই এ গ্রীষ্মে আয়োজন করছে তিনটি টেস্ট, যার প্রথমটি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ম্যাচ। ইংল্যান্ডের আন্তঃস্কোয়াড ম্যাচ হয়েছে এখানেই, তিনদিনেই যেখানে পড়েছে ২৫টি উইকেট। 

    অবশ্য ক্রিকেট ফেরার রোমাঞ্চে বাগড়া দিতে পারে আবহাওয়া। প্রথম দুই দিনই আছে বৃষ্টির সম্ভাবনা। 

    যাদের ওপর চোখ

    বেন স্টোকস

    ইডেনের ফাইনালে কার্লোস ব্রাথওয়েটের ব্যাটে পিষ্ট হওয়া, ব্রিস্টল কান্ডর পর বিশ্বকাপ ফাইনালের নায়ক, এরপর হেডিংলি রূপকথার নতুন সংস্করণ লেখা-- বেন স্টোকস ২০১৯ সালে করেছিলেন দায়মোচন। এবার স্টোকস ইংল্যান্ডের অধিনায়ক। যদিও সেটি এক টেস্টের জন্য, দ্বিতীয় সন্তানের জন্মের সময় স্ত্রীর পাশে থাকবেন বলে এ টেস্টে খেলছেন না নিয়মিত অধিনায়ক জো রুট। তবে বাড়তি দায়িত্ব স্টোকসের কোন দিকটা বের করে আনে, সেদিকে তো নজর রাখতেই হবে। 

    জেসন হোল্ডার

    ক্যারিবীয় অধিনায়কের সময় খুব একটা সুবিধার যাচ্ছে না। দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে ৩ ইনিংস মিলিয়ে করেছেন ৭ রান, উইকেট নিয়েছেন মাত্র ১টি। ঠিক সময়ে জ্বলে উঠতে পারবেন তিনি? 

    সম্ভাব্য একাদশ

    স্টুয়ার্ট ব্রড নাকি মার্ক উড? শেষ পর্যন্ত খেলবেন কে? ইংল্যান্ডের একাদশ নির্বাচনে বড় প্রশ্ন এটিই। 

    ইংল্যান্ড
    ররি বার্নস, ডম সিবলি, জো ডেনলি, জ্যাক ক্রলি, বেন স্টোকস, ওলি পোপ, জস বাটলার, ডম বেস, জফরা আর্চার, স্টুয়ার্ট ব্রড/মার্ক উড, জেমস অ্যান্ডারসন 

    ওয়েস্ট ইন্ডিজ

    জন ক্যাম্পবেল/জশুয়া ডা সিলভা, ক্রেইগ ব্রাথওয়েট, শামারহ ব্রুকস, শেই হোপ, রসটন চেজ, শেন ডওরিচ, জেসন হোল্ডার, রাহকিম কর্নওয়াল, আলজারি জোসেফ, কেমার রোচ, শ্যানন গ্যাব্রিয়েল

    সংখ্যার খেলা 

    • ইংল্যান্ডের ৮১তম অধিনায়ক হচ্ছেন স্টোকস
    • আর ১০২ রান করলে টেস্টে ২০০০ রান পূর্ণ হবে হোল্ডারের, পূর্ণ হবে ২০০০ রান ও ১০০ উইকেটের ডাবল। এর আগে যা আছে দুজন ওয়েস্ট ইন্ডিয়ানের 
    • বাদ পড়লে দেশের মাটিতে টানা ৫১টি টেস্ট খেলার দৌড় থামবে ব্রডের


    তারা বলেন 

    “এখন পর্যন্ত সেরা বার্তাটা পেয়েছি গতকাল, ফটোসেশনের পর হ্যাঙ্গারে ব্লেজারটা রাখার পর। রুটি (জো রুট) একটা বার্তা রেখে গেছে সেখানে, যাতে লেখা- ‘ডু ইট ইয়োর ওয়ে’।

    বেন স্টোকস 

    “বেনকে নিয়ে সবসময়ই কথা হয়, হওয়ারই কথা। সে ভাল ক্রিকেটার। কিন্তু আইসিসি র‍্যাঙ্কিং বলছে যে আমি এক নম্বর অলরাউন্ডার। হয়তো সে অর্থে প্রাপ্য স্বীকৃতিটা পাই না আমি। কে জানে!

    জেসন হোল্ডার

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন