• হকি

হকিঃ যুব অলিম্পিক গেমস ২০১৮

পোস্টটি ৯৫৪ বার পঠিত হয়েছে

আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েন্‌স আইরেসে শুরু হয়ে গেল যুব অলিম্পিক গেমস ২০১৮। 

নারীদের ইভেন্টে স্বাগতিক আর্জেন্টিনার সাথে খেলবে অস্ট্রেলিয়া, অস্ট্রিয়া, চীন, ভারত, মেক্সিকো, নামিবিয়া, পোল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, উরুগুয়ে, ভানুয়াতু এবং জিম্বাবুয়ে।

পুরুষদের ইভেন্টে আর্জেন্টিনা স্বাগতম জানাবে অস্ট্রেলিয়া, অস্ট্রিইয়া, বাংলাদেশ, ভারত, কানাডা, কেনিয়া, মালেয়শিয়া, মেক্সিকো, পোল্যান্ড, ভানুয়াতু এবং জাম্বিয়া।

পুরুষদের ইভেন্টে পুল-এ তে মেক্সিকো মুখোমুখি হবে পোল্যান্ডের অন্যদিকে নারীদের ইভেন্টে ভারত মুখোমুখি হবে অস্ট্রিয়ার।

capture

১২টি পুরুষ এবং ১২টি নারী দলের খেলোয়াড়দের স্বপ্নপূরণের প্রথম ধাপ এটি। পনের থেকে আঠার বছর বয়সী তরুণ খেলোয়াড়দের জন্য এই টুর্নামেন্ট এক মোক্ষম সুযোগ আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে নিজেদের ক্যারিয়ার গড়ার ।

পুরুষ এবং নারী ইভেন্টে অংশগ্রহণকারী ২১৬ জন অ্যাথলেট নবীন অলিম্পিয়ান হওয়ার এর চেয়ে ভালো সুযোগ আর কোথাও মনে হয় পেতেন না। আর্জেন্টিনার মানুষেরা খুবই ভালো হকি বোঝে। এতে করে আন্দাজ করাই যায় বুয়েন্‌স আইরেস এর গ্যালারীতে বোদ্ধা দর্শকরা ভিড় জমাবে।

[আরও পড়ুনঃ হকি খেলতে পাকিস্তানকে আমন্ত্রণ জানাবে না স্কটল্যান্ড!}

ভারতের লালরেমসিয়ামি বড় মঞ্চে কিভাবে খেলতে হয় তা সম্পর্কে ভালোই ওয়াকিবহাল, ২০১৮ এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি কোরিয়াতে জিতেছেন অ-২১ রাইজিং স্টার অ্যাওয়ার্ড। কার্যকরী এই স্ট্রাইকারের জাতীয় দলে অভিষেক হয় ২০১৭ সালে। এ বছর লন্ডনে ওমেন্‌স ওয়ার্ল্ড কাপে ভারতের অন্যতম স্টার খেলোয়াড় ছিলেন তিনি। 

Capture

পারিবারিক ধারাবাহিকতায় খেলা শুরু করা বেশ প্রচলিত যেকোনো খেলায়। হকিও তার ব্যতিক্রম নয়। বাংলাদেশের দুই তারকা হকি খেলোয়াড় ইসা-মুসা তার উল্লেখযোগ্য উদাহরণ। তাঁরা বাদেও অনেক সহোদর হকি খেলোয়াড় বাংলাদেশে আছেন। যুব অলিম্পিক গেমসের এই তৃতীয় আসরেও এই পারিবারিক ধারাবাহিকতার দেখা মেলে। দুই ভাই টমাস্‌জ এবং এরিক বেমবেনেক এ আসরে তাদের মাতৃভূমি পোল্যান্ডের জন্য নিশ্চয়ই কোনো পদক আনার জন্য মুখিয়ে থাকবেন। 

অস্ট্রিয়ার ইসাবেলা ক্লসব্রাকনার তাদের কোচের কথার বাইরে এক চুলও নড়বেন না। কারণ তার বাবাই যে অস্ট্রিয়ার হেড কোচ! ইসাবেলার পারিবারিক ঐতিহ্যের সাথে হকি মিশে আছে। তার মা স্যানড্রা ২০১১ সালে ইনডোর হকি বিশ্বকাপে অস্ট্রিয়ার হয়ে খেলেছেন। 

দুই ভাই ব্র্যাড এবং ক্রেইগ মারাইস এ বছরও অপ্রতিরোধ্য অস্ট্রেলিয়াকে চ্যাম্পিয়ন করার দিকে চোখ রাখছেন। ২০১০ ও ২০১৪ টানা দুই আসর অস্ট্রেলিয়া স্বর্ণ পদক জিতেছে। এ বছরও স্বর্ণ পদকের ব্যতিক্রম চাইবে না তারা। অস্ট্রেলিয়ান দলে বেশ কয়েকজন বহু-মেধাসম্পন্ন খেলোয়াড় আছেন। ক্রিশ্চিয়ান স্টার্কি চমৎকার স্কোয়াশ খেলেন। অন্যদিকে জেমস্‌ কলিনস্‌ সম্ভাবনাময় একজন ক্রিকেটার। 

arg-training

গত আসরে নারীদের ইভেন্টের চ্যাম্পিয়ন চীন এবছরও ট্রফি ধরে রাখতে চাইবে অবশ্যই। ২০১৪ সালের আসরে নিজেদের মাটিতে নেদারল্যান্ডসকে ধুন্ধুমার প্রতিযোগিতাপূর্ণ এক ফাইনালে হারায়। সম্পূর্ণ খেলা শেষে স্কোরলাইন ৫-৫। খেলা চলে যায় সোজা টাইব্রেকারে। তারপরে সেই টাইব্রেকারে নেদারল্যান্ডসকে হারায় চীন। 

আর্জেন্টিনা এবার চ্যাম্পিয়ন হবার কোনো সুযোগই হাতছাড়া করবে না। নিজেদের মাটিতে খেলা বলে কথা। 

{আরও পড়ুনঃ হকি ওয়ার্ল্ড লীগের শেষ, হকি সিরিজের শুরু}

আর্জেন্টিনার হাল ধরেছেন এমন এক কোচ যিনি কিনা এরকম বড় বড় আসরে কিভাবে জয় ছিনিয়ে আনতে হয় সে সম্পর্কে ভালোই অভিজ্ঞতা রাখেন। ২০১৪ বিশ্বকাপে নারী ও পুরুষ উভয় দলকে ব্রোঞ্জ পদক জেতানোর পর ২০১৬ রিও অলিম্পিক গেমসে পুরুষ দলকে চ্যাম্পিয়ন করেছেন। ২০১৪ বিশ্বকাপের ন্যায় এবছরও যুব অলিম্পিকে নারী ও পুরুষ উভয় দলের হয়েই কাজ করছেন।

পাঁচটি মহাদেশ থেকে আসা দল লড়াই করবে এ আসরে। এবারই প্রথমবারের মত অংশগ্রহণ করা দল জিম্বাবুয়ের অংশগ্রহণই বিশ্বব্যাপী হকির প্রসারের প্রমাণ রাখে। তাদের নারী হকি দল হল আফ্রিকা মহাদেশের একমাত্র দল যারা কিনা ১৯৮০ সালের পর কোনো অলিম্পিক গেমসে পদক জয় করে। 

যুব অলিম্পিক গেমসের হকির ইভেন্ট এর অফিশিয়াল ওয়েবপেজ দেখতে ঘুরে আসুন এই লিংকে। 

'প্যাভিলিয়ন ব্লগ’ একটি কমিউনিটি ব্লগ। প্যাভিলিয়ন ব্লগে প্রকাশিত লেখা, মন্তব্য, ছবি এবং ভিডিওর সম্পূর্ণ স্বত্ব এবং দায়দায়িত্ব লেখক এবং মন্তব্য প্রকাশকারীর নিজের। কোনো ব্যবহারকারীর মতামত বা ছবি-ভিডিওর কপিরাইট লঙ্ঘনের জন্য প্যাভিলিয়ন কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না। ব্লগের নীতিমালা ভঙ্গ হলেই কেবল সেই অনুযায়ী কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিবেন।